ঝিকরগাছায় করোনা মোকাবিলায় সাবেক জাতীয় ক্রিকেট দলের খেলোয়ার সৈয়দ রাসেলের লড়াই

0
241

ঝিকরগাছা (যশোর) প্রতিনিধি : চলমান করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় নি¤œ আয়ের মানুষের পাশে থেকে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক খেলোয়ার (ঝিকরগাছার সন্তান) সৈয়দ রাসেলের লড়াই করে যাচ্ছে। ইতিমধ্যে তিনি ব্যক্তিগত উদ্যোগে পৌরসদরের ৭,৮ ও ৯নং ওয়ার্ডের দিনমুজুর নি¤œ আয়ের মানুষ যেমন সুইপার কোলনী, ঋষিপল্লী, ভ্যানচালক, হকারসহ বিভিন্ন শ্রেনি পেশার ৬ শতাধিক পরিবারকে খাদ্য সহায়তা দিয়েছেন। বর্তমান সঙ্কটময় সময়ে মানুষের পাশে দাঁড়াতে পরিবার থেকে দূরে থাকছেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের এক সময়ের নিয়মিত এই সদস্য। চলমান করোনা ভাইরাসের কারণে দেশজুড়ে স্থবিরতা নেমে এসেছে। বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে স্কুল-কলেজ, অফিস-আদালত। রাস্তা-ঘাটে যানবাহন নেই বললেই চলে। পুরো দেশেই লকডাউন অবস্থা। সবাই নিজেকে ঘরবন্দী করে রেখেছেন। এমন সময়ে মানুষের পাশে দাঁড়াতে পরিবার থেকে দূরে থাকছেন ক্রিকেটার সৈয়দ রাসেল। জানতে চাইলে বাংলাদেশে জাতীয় ক্রিকেট দলের হয়ে ৬ টেস্ট ও ৫২ টি ওয়ানডে খেলা সৈয়দ রাসেল বলেন, ‘আমার পৌল্টি ফার্ম আছে, আমি এখানে ১৬-১৭ দিন সেলফ কোয়ারেন্টিনে আছি। আমি বাসাতেই যাচ্ছি না। বাসার কাউকে বাইরে যেতে দিচ্ছি না। আমি বাইরে থাকায় পরিমানে কম হলেও লোকজনের সাথে মেশা হচ্ছে। এই কারনে আমি পরিবার থেকে দূরে আছি। তিনি বলেন, প্রথম দফায় ৫০০ পরিবারের কাছে খাদ্য পৌঁছে দিয়েছেন রাসেল। প্রতিটি প্যাকেটে চাল, আলু, আটা ও ডাল দেয়া হয়েছে। পরের ধাপে হ্যান্ড স্যানিটাইজারও রাখবেন। তিনি বলেন, সরকারি অনুদান ভালোভাবে বিতরণ করলে আরও অনেকের কাছেই সাহায্য পৌঁছাত বলে মনে করেন রাসেল। তিনি বলেন, ‘৫০০ জন মানুষকে সাহায্য করব বলে ঠিক করেছিলাম। সবাইকে দিতে না পারায় আরো বাড়ানো হয়েছে। আমার সামর্থ্য অনুযায়ী আমি চেষ্টা করেছি। এছাড়া সরকারিভাবে সাহায্য করছে। অনেক পাচ্ছে আবার অনেকে পাচ্ছে না। আরও ঠিকভাবে এটা বিতরণ করা উচিত। আমার এদিকে যারা দায়িত্বে, তাদের সাথে সেভাবে যোগাযোগ করতে পারিনি। এরপর নিজেই চেষ্টা করলাম।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here