করোনা সন্দেহে মোংলা বন্দরে চীনা কয়লাবাহী জাহাজের কার্যক্রম বন্ধ

0
369

বাগেরহাট প্রতিনিধি : করোনা ভাইরাস সন্দেহে মোংলা বন্দরে চীন থেকে আসা কয়লাবাহী একটি বাণিজ্যিক জাহাজের সব কার্যক্রম বন্ধ রাখা হয়েছে। এ জাহাজের নাবিকরা করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত সন্দেহে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।
শরীরে তাপমাত্রা বেশি থাকায় ওই জাহাজের নাবিক ছয় চীনা নাগরিককে জাহাজের অভ্যন্তরে ওই নাবিকদের কক্ষে নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। জাহাজটি চীন থেকে সিঙ্গাপুর, মালয়েশিয়াসহ বিভিন্ন দেশ ঘুরে বাংলাদেশে এসেছে।
এর আগে, তারা চট্টগ্রাম বন্দরে যখন প্রবেশ করে তখনও নাবিকদের কারও কারও শরীরের তাপমাত্রা বেশি ছিল। সেখানে যাদের শরীরে তাপমাত্রা বেশি ছিল তাদের কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছিল। কোয়ারেন্টিনে সময় ১৪ দিন শেষ হওয়ার পরেই তারা মোংলা বন্দরে এসেছে বলে জানান মোংলা পোর্ট হেলথ অফিসার ডা.সুফিয়া খাতুন।
এদিকে মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের হারবার মাষ্টার কমান্ডার শেখ ফখর উদ্দিন ও ওই জাহাজটির স্থানীয় শিপিং এজেন্ট মের্সাস সুলতান শিপিং এর ব্যবস্থাপক মাহমুদুল হক রাজু জানান, ২৪ হাজার মেঃ টন কয়লা নিয়ে ইন্দোনেশিয়া থেকে আসা ‘মের্সাস চ্যাং হ্যাং জিং হাই’ জাহাজটি রবিবার (২৭ এপ্রিল) দুপুর সোয়া ৩ টায় মোংলা বন্দরের হারবারিয়ায় আসে। বন্দরের হাড়বাড়িয়ার ৭ নম্বর মুরিং বয়ায় জাহাজটি অবস্থান নেয়। এরপরই স্বাস্থ্য বিভাগের চিকিৎসকদের পরীক্ষায় তাদের শরীরে জ্বরের মাত্রা বেশি পাওয়ায় করোনা সন্দেহ এবং করোনা উপসর্গ পরিলক্ষিত হওয়ায় তাদেরকে আইসোলেশনে রাখা হয়। এ অবস্থায় জাহাজটিতে পণ্য খালাস না করতে শ্রমিক গ্যাং বুকিং দিতে নিষেধ করা হয় বলে জানান মের্সাস সুলতান শিপিং এর ব্যবস্থাপক মাহমুদুল হক রাজু। তিনি বলেন, স্বাস্থ্য বিভাগের চিকিৎসকদের রিপোর্ট পাওয়ার পরই জাহাজে পণ্য খালাসের সিদ্ধান্ত হবে।
গত ১ এপ্রিল ‘মের্সাস চ্যাং হ্যাং জিং হাই’ জাহাজটি চট্রগ্রাম বন্দরে এসে ৩০ হাজার মেঃ টন কয়লা খালাস করে বলে জানা গেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here