কেশবপুরে শাহীন চাকলাদারের পক্ষে শ্রমিকদের মাঝে পৌর মেয়র রফিকুল ইসলামের খাদ্যসামগ্রী বিতরণ

0
380

কেশবপুর (যশোর) ব্যুরো : কেশবপুর পৌর এলাকায় করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে লকডাউনে কর্মহীন শ্রমিকদের মাঝে যশোর-৬ কেশবপুর সংসদীয় আসনে উপ-নির্বাচনে নৌকার প্রার্থী ও যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদারের পক্ষে নিজস্ব অর্থায়নে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেন পৌর মেয়র রফিকুল ইসলাম। রবিবার দুপুরে শহরের গমপট্টিতে শ্রমিকদের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণকালে আরো উপস্থিত ছিলেন চাউল ব্যাবসায়ী বিষ্ণুপদ দাস, পৌর যুবলীগনেতা রাজিব, উপজেলা বঙ্গবন্ধু ছাত্র পরিষদের আহ্বায়ক সবুজ হোসেন নিরব, উপজেলা ছাত্রলীগনেতা সাফায়েত হোসেন প্রমুখ। কেশবপুর পৌরসভার খাদ্যসামগ্রী বিতরণ বিষয়ে মেয়র রফিকুল ইসলাম জানান, পৌর সভা ও তাঁর নিজস্ব অর্থায়নে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে লক ডাউনে কর্মহীন ৯ হাজার ৯ শত ১৬ পরিবারের মাঝে খাদ্য ও নগদ অথ্য সহায়তা প্রদান করা হয়েছে। এর মধ্যে অতিদরিদ্র ৫ হাজার ৬ শত ১৩ অতিদরিদ্র পরিবারের মাঝে চাউল, ডাউল, আলু, পেয়াজ ও তৈল-সহ খাদ্যসামগ্রী প্রদান করা হয়েছে। তার মধ্যে যশোর-৬ কেশবপুর সংসদীয় আসনে উপ-নির্বাচনে নৌকার প্রার্থী ও যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদার প্রদত্ত ১ হাজার ৭ শত ৫০ পরিবারের মাঝে খাদ্যসামগ্রী রয়েছে। ৪ হাজার ১শত ৯৬ মধ্যবৃত্ত পরিবারের মাঝে নগদ অর্থ বিতরণ করা হয়েছে। এবং ১ শত ৭ পরিবারের মাঝে শুধুমাত্র চাউল ক্রয় করে দেওয়া হয়েছে।
কেশবপুর পৌরসভার মেয়র রফিকুল ইসলাম আরো জানান, পৌরসভার বিত্তবানদের উদ্বুদ্ধ করায় পৌর কাউন্সিলর আতিয়ার রহমান ৯৬ পরিবারের মঝে, টিটো ৪৬ পরিবারের মাঝে, ব্যাবসায়ী বক্কার গাজী ২ শত পরিবারের মাঝে, মুরগী ব্যবসায়ী জাকির হোসেন ১ শত ৪২ পরিবারের মাঝে, দলিল লেখক আমিনুর রহমান ২ শত ৫০ পরিবারের মাঝে, পৌর কাউন্সিলর আফজাল হোসেন বাবু ১ হাজার ৫ শত ৮৭ পরিবারের মাঝে, রুবেল ও জিয়ার ২ শত ৫০ পরিবারের মাঝে, নাসির উদ্দীন ৩ শত ১৭ পরিবারের মাঝে ও মোশারফ মোড়ল ২ শত ১ পরিবারের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেছেন।
এছাড়া ব্যাবসায়ী ওহেদুজ্জামান বিশ্বাস ৪ শত পরিবারের মাঝে, পৌর স্বোচ্ছাসেবক লীগের আহ্বায়ক আবুল বাসার খান ৫০ পরিবারের মাঝে, যুগ্ম-আহ্বায়ক সেলিম খান ৫০ পরিবারের মাঝে এবং সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব প্রদীপ বসু পল্টু ৫০ পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here