৩৮৫ বিঘা কৃষি জমি ফেরত পাওয়ার দাবীতে মরিয়া রাজগঞ্জের কৃষকরা

0
508

ডি এইচ দিলসান ও হেলাল উদ্দিন : ৩৮৫ বিঘা কৃষি জমি ফেরত পাওয়ার দাবিতে ফুসে উঠেছে রাজগঞ্জের চালুয়াহাটি ইউনিয়নের বিল বলধালী পাড়ের কৃষকরা। তাদের দাবি হয় ধান না হয় প্রাণ। দখলদার মৎস্য ব্যবসায়ীদের আগ্রাসন থেকে নিজেদের ফসলের জমি ফেরত পাওয়ার লক্ষে দীর্ঘদিনের আন্দোলনের ধারাবাহিকতায় শনিবার সকালে কৃষকরা তাদের জমিতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ প্রদর্শন করে। এ সময় বিল বলধালীর ঘের পাড়ে চালুয়াহাটির ইউনিয়নের ৩ শতাধিক কৃষক ঘন্টাব্যাপি এই মানববন্ধনে অংশগ্রহন করেন। মানববন্ধন থেকে কৃষকরা জানায়- মনিরামপুর উপজেলার চালুয়াহাটি ইউনিয়নের ২০৫ নং আটঘরা, ২০৬ গৌরিপুর মৌজার ও কেশবপুর অংশের কিছু জমির উপর মাছের ঘের করে চাষাবাদ করে আসছে সুলতান ও বাবু নামের দুই ব্যক্তি। তারা এই জমি প্রতিবিঘা ২৫ হাজার টাকা বাৎসরিক লিজ চুক্তি করে নিয়ে মাছের ঘের করে মাছ চাষ করে আসছে। এরমধ্যে বিগত ২০১৯ ইং সালের মাঝামাঝি সময়ে চুক্তি শেষ হয়। এরপর জমির মালিকরা জমি সুলতান ও বাবুর নিকটে জমি লিজ দিতে অস্বীকার এবং জমি ফেরত চাই। এক পর্যায় সুলতান ও বাবু কৃষকদের জমি ফেরত না দিয়ে বিভিন্ন তালবাহানা করতে থাকে এবং নতুন করে চুক্তি না করে বিভিন্ন হুমকি-ধামকি দেয় তারা। কৃষকরা আরো বলেন- আমরা এই এলাকার কৃষক। কৃষি কাজ করে আমাদের জীবিকা নির্বাহ করতে হয়। আমাদের এই জমি সুলতান ও বাবু দখল করে রাখার পায়তারা করছে এবং আমাদের নতুন চুক্তির টাকা না দিয়ে আমাদের উপর অন্যায় অবিচার করছে। আমরা এর সঠিক বিচার চাই এবং আমাদের জমি ফেরত চাই। এসময় মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন- শহীদ খান, সামছুল হক, আব্দুল বারীক, বীর মুক্তিযোদ্ধা মোবাশ্বের খান, ইছাক ফকির, সুলতিন ফকির, কালীপদ ঘোষ, হযরত মাষ্টার, ইউপি সদস্য মফিজুর রহমান, আবুল হাসান ও আমেনা বেগম।
এ সময় বীর মুক্তিযোদ্ধা মোবাশ্বের খান বলেন, আমাদের বাপ দাদাদের জমির উপর সুলতান ও বাবু মাছের ঘের করে। এখন আমরা সহ আমাদের কৃষক ভাইরা তাদের নিকটে জমি লিজ দিতে অস্বীকার করছে, কারন তারা জমি মালিকদের সাথে অন্যায় অবিচার করেছে। যার কারনে আমরা জমি ফেরত চাই। কিন্তু সুলতান ও বাবু কৃষকদের জমি ফেরত না দিয়ে বিভিন্ন তালবাহানা করছে এবং নতুন করে চুক্তি না করে বিভিন্ন হুমকি-ধামকি দিচ্ছে। তিনি বলেন প্রশাসন ব্যাপারটা দেখুক, এবং আমাদের উদ্ধার করুক।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here