নড়াইলে এপর্যন্ত করোনায় একজন ও শ্বাসকষ্টসহ করোনা উপসর্গে চার জনের মৃত্যু!! আক্রা’ন্ত ২৬ জনের মধ্যে সুস্থ ১৫

0
350

নড়াইল জেলা প্রতিনিধি : নড়াইলে করোনায় এক জন এবং শ্বাসকষ্টসহ করোনা উপসর্গে চার জনের মৃত্যু হয়েছে। তবে শ্বাসকষ্টে মৃত এক জনের করোনা নমুনা সংগ্রহ না করেই তাদের দাফ*ন করা হয়েছে। জেলায় গত ২৪ ঘন্টায় ৪জন নতুন করোনায় আ’ক্রান্ত হয়েছেন। এরা সবাই লোহাগড়া উপজেলার। বর্তমানে জেলায় ১১জন করোনায় আ’ক্রান্ত হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছেন। এর মধ্যে লোহাগড়া উপজেলায় ৯জন, সদরে ১জন এবং কালিয়া উপজেলায় ১জন রয়েছেন। এদিকে সারা দেশের মতো নড়াইলে অফিস ও বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়া হলেও অধিকাংশ মানুষ শারী*রিক দূরত্ব না মেনে এবং মাস্ক না পরেই চলাফেরা করছেন।
জানা গেছে, বৃহস্পতিবার (২৮ মে) শ্বা*সক*ষ্টসহ করোনা উপস*র্গ নিয়ে লোহাগড়ার মাকড়াইলে গ্রামে রেজাউল করীম (৪৫) নামে এক জনের মৃত্যু হয়েছে। ঢাকায় সিকিউরিটি কোম্পানীর ম্যানেজার হিসেবে চাকুরিরত রেজাউল ঢাকা থেকে বাড়িতে ফেরার ৩দিন পর মা*রা যান। তার করোনা নমুনা সংগ্রহ ছাড়াই দা*ফন করা হয়েছে।
১৭মে শ্বা*সক*ষ্টসহ করোনা উপসর্গ নিয়ে নড়াইল সদর হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বাঁধন ফকির (১৩) নামের এক বুদ্ধি প্রতিব*ন্ধী শিশু মারা যায়। বাঁধন ফকির সদর উপজেলার ভদ্রবিলা ইউনিয়নের পাঁচুড়িয়া গ্রামের মিলন ফকিরের পুত্র। বাঁধনের করোনা নমূনা সংগ্রহ করা হলে নেগে*টিভ রিপোর্ট আসে। কালিয়া উপজেলার চোরখালী গ্রামের নির্মল রায় চৌধুরীর ছেলে ঢাকায় সিকিউরিটি গার্ডে চাকরিরত বিশ্বজিৎ রায় চৌধুরী করোনা উপ*সর্গ নিয়ে ঢাকা থেকে বাড়িতে আশার ২ দিন পর ৯মে মা*রা যায়। পরে তার করোনা নমুনা সংগ্রহ করা হলে পজিটিভ রিপোর্ট আসে। ১২ এপ্রিল লোহাগড়া উপজেলার বাতাসি গ্রামে জ্ব*র, গ*লা ব্য*থাসহ ও কাঁশি উপসর্গে ফাতেমা বেগমের (৬৫) মৃত্যু হয়। ৩১মার্চ শ্বা*সকষ্ট, জ্বরসহ করোনা উপস*র্গে শহরের দক্ষিণ নড়াইল এলাকার ওমর আলীর পূত্র শওকত আলী নামে এক যুবক মারা যায়। শওকতের করোনা নমুনা সংগ্রহ ছাড়াই তাকে দাফ*ন হয়।
এদিকে সিভিল সা*র্জন অফিসের তথ্য অনুযায়ী সোমবার (১ জুন) এ পর্যন্ত জেলায় ৬৫৬ টি করোনা নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এর মধ্যে ৫১৩টি রিপোর্ট এসেছে। বাতি*ল/ অপারগতা প্রকাশ করা হয়েছে ৯৩টি। পেন্ডিং রয়েছে ৫০টি। এ পর্যন্ত করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে ২৬ জনের। ইতিমধ্যে ৮চিকিৎসকসহ ১৫ জনকে করোনাভাইরাস মুক্ত ঘোষণা করা হয়েছে। বাকি ১১জন হাসপাতাল ও বাসায় চিকিৎসা নিচ্ছেন। সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে, লোহাগড়া উপজেলার লাহুড়িয়া গ্রামে এক মা ও তার কন্যা, লক্ষ্মীপাশায় এক স্বামী-স্ত্রী, ইতনা, মাকড়াইল, শালনগর, গপিনাথপুরে ১জন করে, সদরের দারিয়াপুর গ্রামের গার্মেন্টসকর্মী, কালিয়ার খাশিয়াল গ্রামের মসজিদের ষাট বছরের এক মুয়াজ্জিন (৬০)সহ ১১জন করোনায় আ’ক্রান্ত রয়েছে।
নড়াইলের সিভিল সা*র্জন ডাঃ মোঃ আবদুল মোমেন বলেন, শ্বা*সকষ্টসহ করোনা উপ*সর্গে মৃত রেজাউল করীমের মৃত্যুর বিষয়টি আমাদের না জানিয়েই তাকে ত*ড়িঘড়ি করে দাফন করে। তবে তার পরিবারের ২৭জনের করোনা নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। তিনি বলেন, ঈদের ছুটিতে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে নিজ জেলা নড়াইলে এসেছে। সে কারণে নড়াইলে করোনা ঝুঁকি আরও বাড়তে পারে। অপরদিকে নড়াইলে নতুন করে ৪জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ চারজনই লোহাগড়া উপজেলার বাসিন্দা। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সিভিল সা*র্জন ডাঃ মোঃ আবদুল মোমেন। তিনি বলেন, আ’ক্রান্তদের মধ্যে তিনজনই ঈদের ছুটিতে ঢাকা থেকে বাড়িতে আসে। এছাড়া করোনা শনাক্ত লোহাগড়ার গোপিনাথপুর গ্রামের গোলাম কিবরিয়ার মোবাইল বন্ধ থাকায় তার অবস্থান সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তিনি বলেন, এ নিয়ে জেলায় সর্বমোট ৮জন চিকিৎসকসহ ২৬জন করোনায় আ’ক্রান্ত হয়েছেন।
এর মধ্যে ৮চিকিৎসকসহ ১৫জনের ইতোমধ্যে করোনার রিপোর্ট নেগেটিভ হয়ে সুস্থ্য হয়েছেন। প্রাতিষ্ঠানিক আইসো*লেশনে রয়েছেন মোট ৬জন ও হোম আইসো*লেশনে রয়েছেন ৪জন এবং করোনায় বিশ্বজিত রায় চৌধুরী নামের এক ব্যক্তি ইতোপূর্বে মা*রা গেছেন।
জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার মাকড়াইল গ্রামের ইমদাদ, ইতনা গ্রামের ফরিদা, শালনগর গ্রামের আজিজুল ইসলাম ও গোপিনাথপুর গ্রামের কিবরিয়া আলমের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here