যশোর বাঘারপাড়ার খবির-উর-রহমান কলেজের নৈশ্যপ্রহরীকে মারপিটের ঘটনায় থানায় পাল্টা মামলা

0
341

স্টাফ রিপোর্টার : যশোর বাঘারপাড়ার খবির-উর-রহমান কলেজের নৈশ্যপ্রহরীকে মারপিটের ঘটনায় থানায় পাল্টা মামলা হয়েছে। মামলায় কলেজের অধ্যক্ষ, আহত নৈশ্যপ্রহরীসহ ১২ জনকে আসামি করা হয়েছে। শনিবার কলেজের সভাপতির মামা শ্বশুর নরসিংহপুর গ্রামের নাজিম আল কিরা বাদী হয়ে এ মামলা করেছেন। আসামিরা হলো বাঘারপাড়ার খর্দ্দ বনগ্রামের মৃত মুনসুর আলী ছেলে কলেজের অধ্যক্ষ শামসুর রহমান, জহুরপুর গ্রামের আবু বক্কার শেখ ও তার ছেলে কলেজের নৈশ্য প্রহরী রিপন শেখ, বেতালপাড়ার মৃত বিশারত লস্কারের ছেলে আব্দুল আজিজ, গরীবপুর গ্রামের মৃত মকবুল মন্ডলের ছেলে আবুল কালাম আজাদ, খালিয়া গ্রামের মৃত আফাজ উদ্দিনের ছেলে শরিফুল ইসলাম, ছোট খুদড়া গ্রামের আয়ুব আলীর ছেলে হাফিজুর রহমান, মৃত রজব অলীর ছেলে মশিয়ার রহমান, বালিয়াগড় গ্রামের মৃত মোবারেক কাজীর ছেলে কাজী সিরাজুল ইসলাম, নরসিংহপুর গ্রামের জাফর বিশ্বাসের ছেলে সেলিম, বেতালপাড়া গ্রামের মৃত গোলাম কাদের সরদারের ছেলে আবু সাঈদ সরদার ও মুন্তাজের ছেলে বদর। মামলার অভিযোগে জানা গেছে, গত ২ জুন কলেজের সভাপতি নুর মোহাম্মদ পাটোয়ারী ও তার ভাই দিলু পাটোয়ারি কলেজের অধ্যক্ষসহ শিক্ষকদের সাথে মিটিং করার উদ্যেশে যায়। মিটিং চলাকালিন সময়ে পূর্বশত্রুতার জের ধরে আসামিরা হামলা করে জিয়াকে ছুরিকাঘাত করে জখম করে। এমধ্যে রাজিব, শাহিন, শফিকুল ও হারুকে কুপিয়ে জখম করে আসামিরা। হামলাকারীদের আঘাতে নুর মোহাম্মদ ও তার ভাই দিলু পাটোয়ারী আহত হয়। গুরতর আহদের যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। নুর মোহাম্মদ ও দিল পাটোয়ারী স্থানীয় ভাবে চিকিৎসা নেন। আহতদের চিকিৎসা শেষে স্থানীদের সাথে আলাপা করে তিনি এ মামলা করেছেন। উল্লেখ, গত ২ জুন খবির-উর-রহমান কলেজের নৈশ্য প্রহরি রিপন ও তার পিতাকে কুপিয়ে জখমের অভিযোগে সভাপতি ও তার ভাইসহ ১১ জনকে আসামি করে এরআগে বাঘারপাড়া থানায় আরও একটি মামলা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here