ভোমরা সীমান্তে ভারতে পাচারের সময় বিদেশি পাখি আটক

0
321

সেলিম রেজা মুকুল, সাতক্ষীরা ব্যুরো প্রধান : দৈনিক যশোর পত্রিকায় ২৮ জুন “ভোমরা সীমান্ত দিয়ে নারী-শিশু, মাদক, হু-ি, স্বর্ণ ও ভাইরাসযুক্ত গলদা রেণু পাচার হচ্ছে”। শিরোনামে সংবাদ প্রকাশের পর দিন ২৯ জুন সকাল ৭টায় ভোমরা লক্ষ্মীদাঁড়ী সমীান্তে বিজিবি বিদেশি পাখি ভারতে পাচারের সময় আটক করে। সাতক্ষীরা ভোমরার লক্ষ্মীদাঁড়ী সীমান্ত দিয়ে প্রতিদিন নারী-শিশু, মাদক, হু-ি, স্বর্ণ ও ভাইরাসযুক্ত গলদার রেণু ভারতে পাচার হচ্ছে। শিরোনামে দৈনিক যশোর পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশের পরের দিন ভোমরা ক্যাম্পের বিজিবির সদস্য লক্ষ্মীদাঁড়ী সীমান্ত দিয়ে ভারতে পাচারের সময় ৫টি ব্যাগে ল্যাবট ও বাবলী পাখি আটক করে। ভোমরা বিজিবি ক্যাম্পের নায়েক অহিদ জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ২৯ জুন সোমবার সকাল ৭টার সময় তার নেতৃত্বে একটি টহলদর লক্ষ্মীদাঁড়ী সীমান্তে ওৎ পেতে থাকে। এ সময় একদল চোরাকারবারি ৫টি প্যাকেট নিয়ে ভেড়ী পার হয়ে ভারতের দিকে যাওয়ার সময় তাদের ধাওয়া করলে ব্যাগ ফেলে পালিয়ে যায়। এ সময় ৫টি ব্যাগে তল্লাসী করে লাবাট ও বাবলী পাখি পাওয়া যায়। ২৮ জুন দৈনিক যশোর পত্রিকায় ভোমরা সীমান্তে পাচারের সংবাদে ভারতীয় ভাইরাসযুক্ত গলদার রেণু ও বিদেশি পাখি পাচারের সংবাদে পাচারকারীর নাম রয়েছে। আটক পাখি তার কি না জানতে চাইলে এ ব্যাপারে ঐ পাচারকারী মুঠো ফোনে এই প্রতিবেদনকে জানায় আমি পাখির ব্যবসা করি না আমি কবুতর পুসী, এই পাখি আমরা ধরিয়ে দিয়েছি। ভোমরা সীমান্ত দিয়ে বিজিবির চোখ ফাঁকি দিয়ে দীর্ঘদিন নারী-শিশু, মাদক, হু-ি, স্বর্ণ, ভাইরাসযুক্ত গলদার রেণু পাচার হচ্ছে শিরোনামে ধারাবাহিক সংবাদ প্রকাশ হচ্ছে পাচারকারীদের নামসহ। বিজিবি আকটকৃত পাখি সাতক্ষীরা বিজিবি হেড কোয়াটারে পাঠিয়ে দিয়েছি। ভোমরা লক্ষ্মীদাঁড়ী সীমান্তে যে পাখি বিজিবি আটক করেছে, একটি দায়িত্বশীল সূত্রে জানায়, আটকের সময় ভোমরা গ্রামের মৃতঃ শাকা গাজীর ছেলে মিজান ও সালেকের ছেলে কামরুল ঐ পাখি বহন করে ভারতে নিয়ে যাচ্ছিল। বিজিবির তাড়া খেয়ে তারা দৌড়ে পালিয়ে যায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here