বিএনপির স্মরণ সভায় অধ্যাপক নার্গিস বেগম – দলের প্রতি শামসুল হুদার নিষ্ঠা ও আনুগত্য অনুকরণীয় হয়ে থাকবে

0
183

স্টাফ রিপোর্টার ॥ যশোর জেলা বিএনপির সাবেক ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শামসুল হুদার স্মরণ সভায় দলের আহ্বায়ক অধ্যাপক নার্গিস বেগম বলেছেন, তিনি ছাত্র জীবন থেকেই সকল গণতান্ত্রিক আন্দোলনের সাথে যুক্ত ছিলেন। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত সেই লড়াইয়ে নিজেকে নিবেদিত রেখেছিলেন। বিশেষ করে দেশের অবরুদ্ধ গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা ভোটাধিকারসহ সকল মৌলিক অধিকার পুনঃপ্রতিষ্ঠার প্রতিটি আন্দোলনের তিনি ব্যাপক ভূমিকা পালন করেন। অসুস্থ থাকা সত্ত্বেও বর্তমান ফ্যাসিস্ট সরকারেরর বিভিন্ন মিথ্যা মামলায় তিনি জর্জরিত ছিলেন।
এদিকে, তাকে রোগব্যাধির সাথে লড়তে হয়েছে, অন্যদিকে, ফ্যাসিস্ট সরকারকে মোকাবেলা করতে হয়েছে। গুরুতর অসুস্থ অবস্থার মধ্যেও শামসুল হুদার দিন কেটেছে কারাগারে ও আদাদলতের বারান্দায়।
গতকাল রোববার জেলা বিএনপি কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত স্মরণ সভায় সভাপতির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন। অধ্যাপক নার্গিস বেগম আরও বলেন, শামসুল হুদা সরকারের সীমাহীন দমন পীড়নের মধ্যেও কোনদিন থেকে থাকেননি। ওয়ান ইলেভেনের সেই অসাংবিধানিক সরকারের কঠিন দুঃসময়ের মধ্যেও তিনি নেতা-কর্মীদের পাশে থেকে তাদের সাহস যুগিয়েছেন। তাদের উজ্জীবিত করেছিলেন। তিনি তার আদর্শ থেকে কোনদিন বিচ্যুত হননি। দলের প্রতি শামসুল হুদার যে ডিনষ্ঠা ও আনুগত্য ছিল সেটি আমাদের জন্যে অনুকরণীয় এবং অনুসরণীয়।
স্মরণ সভায় বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপির সদস্য সচিব অ্যাড. সৈয়দ সাবেরুল হক সাবু। পরিচালনা করেন জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য অ্যাড. হাজী আনিছুর রহমান মুকুল। পরে শামসুল হুদার আত্মার মাগফিরাত কামনায় দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় সদস্য প্রয়াত মনিরামপুর উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এসএম মশিউর রহমানের আত্মার মাগফিরাত কামনা করা হয়। দোয়া মাহফিলে অধ্যাপক নার্গিস বেগম, অ্যাড. সৈয়দ সাবেরুল হক সাবু ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় বিএনপির নির্বাহী সদস্য আবুল হোসেন আজাদ, জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য গোলাম রেজা দুলু, অ্যাড, মোহাম্মদ ইসহাক, আব্দুস সালাম আজাদ, নগর বিএনপির সভাপতি সাবেক পৌর মেয়র মারুফুল ইসলাম, সদর উপজেলা বিএনপির সভাপতি নূর-উন-নবী, নগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মুনীর আহমেদ সিদ্দিকী বাচ্চু, সদর উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক কাজী আজম, দপ্তর সম্পাদক অধ্যাপক আসাদুজ্জামান শাহীন, জেলা জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের সাধারণ সম্পাদক আমিনুর রহমান, জেলা মৎস্যজীবী দলের আহ্বায়ক ইসমাইল হোসেন টেনিয়া, জেলা যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক কবির হোসেন বাবু, যুগ্ম সম্পাদক নাজমুল হোসেন বাবুল, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি রবিউল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা আমির ফয়সাল, জেলা ছাত্রদলের সভাপতি রাজিদুর রহমান সাগর, সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামান বাপ্পি প্রমুখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here