দশমিনায় অভিযানের পরও অবৈধ ইটভাটায় পোড়ানো হচ্ছে ইট

0
144

নাসির আহমেদ, দশমিনা (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি : পটুয়াখালীর দশমিনা উপজেলা সদরের কাঁটাখালী গ্রামে একটি ইট ভাটায় ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানের পর আবারো পুরোদমে কাঠ দিয়ে ইট পোড়ানো হচ্ছে। মালিক পক্ষ প্রভাব খাটিয়ে আইনকে উপেক্ষা করেই ইট ভাটা চালু করেছে।
স্থানীয় বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে,উপজেলা সদরের কাটাখালী ভাই ভাই ব্রিকস নামে একটি অবৈধ ইটভাটায় কাঠ দিয়ে ইট পোড়ানো হচ্ছে। ইট ভাটাটির পাশে গাজী বাড়ি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, কাটাখালী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, কয়েকটি হাট বাজার ও মসজিদ সহ শত শত বাড়ি ঘর রয়েছে। স্থানীয় বাসিন্দা কামাল হোসেন জানান,দীর্ঘদিন ওই ইটভাটায় কাঠ দিয়ে ইট পোড়ানোর কারনে এলাকার গাছপালা ও ফসলী জমি বিবর্ন হয়ে গেছে। কাঠ দিয়ে ইট পোড়ানোর কারনে কালো ধূয়ায় এলাকার মানুষের শ্বাসকষ্ট সহ বিভিন্ন রোগের উপসর্গ দেখা দিয়েছে। গত ২২ জানুয়ারী সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নিবার্হী ম্যাজিষ্ট্রেট আবদুল কাইয়ূম ঐ ইট ভাটায় অভিযান চালিয়ে ভাটার মালিক আল আমিন মোল্লাকে এক লাখ টাকা জরিমানা অনাদায়ে এক মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেন। এই সময় ভ্রাম্যমান আদালত ইট ভাটাটি মটার দিয়ে পানি ঢেলে বন্ধ করে দেন। এক লাখ টাকা জরিমানা দিয়ে ছাড়া পেয়ে আবারো পুরোদমে কাঠ দিয়ে ইট পোড়ানো শুরু করে। ইট ভাটায় প্রতিবারে ৮/১০ লাখ ইট পোড়ানো হয় বলে জানা গেছে। এই ব্যাপারে সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট আব্দুল কাইয়ূম জানান, ইট ভাটায় আবারো অভিযান চালানো হবে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার তানিয়া ফেরদৌস জানান,ম্যানেজের অভিযোগ মিথ্যা। ইট ভাটায় অভিযান চালিয়ে ধোয়া বের হওয়া হাতে বানানো টিনের চিমনি ভেঙে দেয়া হয়। এরপরেও তারা ইট পোড়ালে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। এই ব্যাপারে ভাই ভাই ব্রিকসের মালিক ফোরকান মোল্লা জানান,আইন অমান্য করে নয় বরং লাইসেন্স নিয়েই ইট ভাটাটি পুনরায় চালু করা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here