আত্মসাতের টাকা ফেরত দিলেন ইউডিসি উদ্যোক্তা

0
105

স্টাফ রিপোর্টার : যশোরের চৌগাছা উপজেলায় বয়স্কভাতার টাকা আত্মসাতের পর বিপদ বুঝতে পেরে ফেরত দিলেন সিংহঝুলি ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারের (ইউডিসি) উদ্যোক্তা মোস্তাক আহমদ বরুন। ভাতা সুুবিধাভোগীদের সকল তথ্য ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারের উদ্যোক্তার কাছে থাকে। সে সুযোগ কাজে লাগিয়ে ইউনিয়নের অনেক অসচ্ছল বয়স্ক, বিধবা ও প্রতিবন্ধীর ভাতার টাকা আত্মসাৎ এবং সুবিধাভোগীদের কাছ থেকে উৎকোচ আদায়ের অভিযোগ উঠেছে তার বিরুদ্ধে। সিংহঝুলি গ্রামের আত্তাপ উদ্দীন বিশ্বাস বয়স্ক ভাতাভোগী। তিনি অভিযোগ করেছেন, গত ছয় মাসের টাকা পাননি। স¤প্রতি কয়েকবার ইউনিয়ন পরিষদে গেলে উদ্যোক্তা বরুন তাকে বলেছেন, টাকা আসেনি। তাকে উপজেলা সমাজসেবা অফিসে যোগাযোগ করার পরামর্শ দেন। আত্তাপ উদ্দীন বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সমাজসেবা অফিসারের কাছে জানিয়েছেন বলে সাংবাদিকদের জানান। উপজেলা সমাজসেবা কার্যালয়ে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, চলতি বছরের ৩ মার্চ উপজেলার বয়স্কভাতাভোগীদের টাকা তাদের নিজ নিজ ব্যাংক অ্যাকাউন্টে টাকা জমা হয়েছে। হিসাব অনুযায়ী মাসে ৫০০ টাকা হিসেবে ছয় মাসের তিন হাজার টাকা আত্তাপ উদ্দীনের ( ১০৮৩৪৪১১১৭৮৪১) ব্যাংক এশিয়া এজেন্ট ব্যাংকিং হিসাব নম্বরে জমা হয়েছে। ব্যাংকে খোঁজ নিয়ে দেখা যায়, গত ৩ মার্চ আত্তাপ উদ্দীনের অ্যাকাউন্ট থেকে তিন হাজার টাকা উত্তোলন করা হয়েছে। আত্তাপ উদ্দীনের অভিযোগ, তথ্য কেন্দ্রের উদ্যোক্তা বরুন এই টাকা উত্তোলন করেছেন। তিনি বলেন, বরুন শুধু আমার টাকা নয়, সে আরো অনেকের টাকা আত্মসাৎ করেছে। অভিযোগ পেয়ে বয়স্কভাতার টাকা আত্মসাতের বিষয়ে বরুন বলেন, ইন্টারনেটের সমস্যার কারণে উনার বিষয়টি সেসময় ভালো করে বুঝতে পারিনি। উনার টাকা উনি না উঠালে টাকা কে উঠাবে? কথোপকথনের এক ঘণ্টা পরে ব্যাংকে ২৪ মে আত্তাপ উদ্দীনের অ্যাকাউন্টে তিন হাজার টাকা জমা হতে দেখা গেছে। উদ্যোক্তা বরুনের বিরুদ্ধে ২০ থেকে ৫০ টাকা করে উৎকোচ আদায়ের অভিযোগ করেছেন ইউনিয়নের একাধিক সরকারি সুবিধাভোগী। উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা মেহেদী হাসান বলেন, সিংহঝুলি ইউনিয়নের উদ্যোক্তা বরুন একজন অদ কর্মী। তার কারণে প্রতিমাসেই এ ধরনের কয়েকটা ঝামেলা লেগেই থাকে। আত্তাপ উদ্দীনের বিষয়টি খোঁজ নিয়ে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলেন তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here