মণিরামপুরে পল্লী বিদ্যুৎ লাইনের পিলার পরিবর্তন করাকে পুঁজি করে সংখ্যালঘুসহ ৬টি পরিবারের কাছে চাঁদা দাবী

0
101

স্টাফ রিপোর্টার : মনিরামপুরের রোহিতা ইউনিয়নের আড়াই কিলোমিটার পল্লী বিদ্যুৎ লাইনের পিলার পরিবর্তন করাকে পুঁজি করে সংখ্যালঘু পরিবার সহ ৬ টি পরিবারের নিকট ৪০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করেছে স্থানীয় শরিফুল ইসলাম ওরফে এতিম নামের এক দালাল। ঘটনাটি নিয়ে এলাকায় সমালোচনার ঝড় বয়ে চলেছে। জানা যায়, ইউনিয়নের গাংগুলিয়া আমতলা মোড় হতে মুড়াগাছা বাজার পর্যন্ত প্রায় আড়াই কিলোমিটার পল্লী বিদ্যুৎ ফোর লাইন করার জন্য পিলার পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত নেয় পল্লী বিদ্যুৎ। এই পিলার পরিবর্তনকে পুজি করে দালাল হিসাবে খ্যাত গাংগুলিয়া গ্রামের আতর আলীর ছেলে শরিফুল ইসলাম ওরফে এতিম পিলার সরিয়ে দেওয়ার কথা বলে একই গ্রামের সংখ্যালঘু বিশ্বজিৎ রায়, দিলীপ ও অমেদালী, হামেদালীসহ ৪ জনের কাছে ৫ হাজার করে ২০ হাজার ও দালাল এতিমের ভাগনে বাবুর কাছে ১০ হাজার, শহিদুলের কাছে ১০ হাজার টাকা চাঁদা দাবী করে। টাকা দিতে না পারায় দালাল এতিম ফোরম্যানের জোগসাজসে দুটি পিলার এলোমেলো ভাবে সরিয়ে দিয়েছে। তাতে দালালের টাকা না দেওয়া ব্যক্তিদের চরম তি দেখা দিয়েছে। ভুক্তভোগীসহ স্থানীয়দের দাবী পল্লী বিদ্যুতের আলোচিত দালাল নামধারী শরিফুল ইসলাম ওরফে এতিমের বিষয়টি তদন্ত পুর্বক ব্যবস্থা গ্রহন করা প্রয়োজন। বিষয়টি জানতে দালাল শরিফুল ইসলাম ওরফে এতিমের ব্যবহিত ফোনে কল করেও তাকে পাওয়া যায়নি। এ বিষয়ে কথা হয় ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আরিজুল ইসলাম ও ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি কেসমত আলী, স্থানীয় মেম্বর খায়রুল বাশার এবং ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি প্রভাষক আলাউদ্দীন হোসেন লিটন বলেন, দালাল এতিম পিলার সরানোর নামে যে টাকা চেয়েছে এটা সম্পুর্ন অন্যায়। আমরা ঐ দালালের বিরুদ্ধে অভিযোগটি তদন্ত পুর্বক ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য পল্লী বিদ্যুৎসহ প্রশাসনের প্রতি জোর দাবী করছি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here