সাইফুলের স্বীকারোক্তি জবানবন্দি ঝিকরগাছার সাদির আলী গ্রামের ব্যবসায়ী মোশারেফের বাড়ির চুরির ঘটনায় তিনজন আটক, গহনা উদ্ধার

0
18

নিজস্ব প্রতিবেদক :যশোরের ঝিকরগাছার সাদির আলী গ্রামের ব্যবসায়ী মোশারেফের বাড়ির চুরির ঘটনায় জড়িত তিনজনকে আটক করেছে পুলিশ। এ সময় তাদের স্বীকারোক্তিতে সোনা-রূপার গহনা উদ্ধার করা হয়েছে। আটককৃতরা হলো সাদির আলী গ্রামের মৃত আব্দুল লতিফ ড্রাইভারের ছেলে সাইফুল ইসলাম, পুরন্দপুর গ্রামের আনসার আলীর ছেলে মুসলিম জুয়েলার্সের মালিক সাগর আহম্মেদ রাজু ও নাভারণ রেল জাবার এলাকার মৃত মাসুম সরদারের ছেলে সাইদুল আলম।
বুধবার আটক আসামিদের আদালতে সোপর্দ করা হলে চুরির সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দিয়েছে সাইফুল ইসলাম।
জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক সাইফুদ্দীন হোসাইন এ জবানবন্দি গ্রহণ ও তিন আসামিকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন।
সাইফুল ইসলাম জানিয়েছে, সে পেশায় কৃষক। মাঝে-মধ্যে সঙ্গদোষে চুরি করে। কোরবানির ঈদের আগে তার গ্রামের একজন তাকে জানায় মোশারেফের বাড়িতে কেউ নেই। এ বড়িতে চুরি করতে হবে। ২৪ জুলাই গভীর রাতে সাইফুল, সাইদুল ও অপর দুইজন ওই বাড়িতে চুরি করতে যায়। বাইরে সাইফুল ও সাইদুল পাহারা দিচ্ছিল। ঘরের তালা ভেঙ্গে অপর দুইজন রুমে ঢুকে সোনা-রূপার গহনা ও টাকা চুরি করে আনে। চুরি করা গহনা মুসলিম জুয়েলার্সের মালিক সাগর আহম্মেদ রাজুর কাছে ১৪ হাজার ৮শ’ টাকা বিক্রি করে তারা। পুলিশ আটক করলে স্বীকারোক্তিতে রাজুর দোকান থেকে কিছু গহনা উদ্ধার করেছে বলে জানিয়ে সাইফুল ইসলাম।
মামলার অভিযোগে জানা গেছে, গত ২১ জুলাই রাতে মোশরফের শ্বশুর অসুস্থ্য হয়ে পড়লে স্ব-পরিবারে শ্বশুর বাড়ি যান। ঘরে তালা দিয়ে চাবি রেখে যান মোশারফরে ভাবীর কাছে। শ্বশুরের মৃত্যু হওয়ায় তিনি আর বাড়িতে আসেননি। দুই রাত তার ভাবী ওই বাড়িতে ঘুমিয়ে ছিল। ২৪ জুলাই রাতে তিনি তার বাড়িতে ছিলেন। এ রাতে অপরিচিত চোরেরা ঘরের তালা ভেঙ্গে আলমিরা থেকে সোনা-রূপার গহনা, টাকা ও একটি মোবাইল ফোন চুরি করেনিয়ে যায়। এ ব্যাপারে মোশারফ হোসেন ৩ আগস্ট ঝিকরগাছা থানায় অপরিচিত ব্যক্তিদের আসামি করে চুরি মমলা করেন।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই সিরাজুল ইসলাম চুরির সাথে জড়িত সন্দেহে মঙ্গলবার সাইফুল ইসলামকে আটক করেন। তার স্বীকারোক্তিতে আটক করা হয় সাইদুল ইসলামকে। এরপর তাদের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে মুসলিম জুয়েলার্সের মালিক সগরকে আটক ও তার দোকান থেকে চুরি হওয়া রূপার আংটি, নুপুর ও সোনর বালা গলিয়ে তৈরী দুই জোড়া কানের দুল উদ্ধার করা হয়।
মঙ্গলবার আটক আসামিদের আদালতে সোপর্দ করেন তদন্তকারী কর্মকর্তা। সাইফুল চুরির সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে আদালতে ওই জবানবন্দি দিয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here