নড়াইলে ১৪৪ ধারা ভঙ্গ করলেন বাদী

0
196

নড়াইল প্রতিনিধিঃ নড়াইলে আদালতের কাঃ বিঃ ১৪৪ ধারা ভঙ্গ করলেন বাদী মোঃ আরজ আলী মোল্যা। ঘটনাটি ঘটেছে জেলার নড়াগাতির থানার জয়নগর ইউনিয়নের কেশবপুর গ্রামে। জানা গেছে গত মাসের ১৯/০৭/২০২১ ইং তারিখে বিজ্ঞ আদালত কেশবপুর মৌজার বীর মুক্তিযোদ্ধা ছিদ্দিকুর রহমান চৌধূরীর ১৮ শতক জমির উপর স্থিতি অবস্থা বিরাজমান রেখে ১৪৪ ধারা জারি করেন। যে কারনে জয়নগর ইউনিয়নের উপ-সহকারী ভ’মি কর্মকর্তা (তহশিলদার) মোঃ ইদ্রিস আলী ০৯.০৮.২০২১ ইং তারিখে সরেজমিনে দেখে প্রতিবেদন করতে যান। সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে বাদী কেশবপুর গ্রামের মৃত আমিন মোল্যার ছেলে মোঃ আরজ আলী মোল্য আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে উক্ত জমির মাঝখানে বাশের একচালা তৈরি করেছেন। বীর মুক্তিযোদ্ধা ছিদ্দিকুর রহমান চৌধূরী জানান, বিগত ০৬.০৭.১৯৯১ সালে কেশবপুর গ্রামের রাজেন্দ্রনাথ বিশ^াসের নিকট থেকে বর্তমান কেশবপুর মৌজার ৪০ নং বিআরএস খতিয়ানের ২১২ হাল দাগের ১৮ শতক জমি ক্রয় করে অদ্যাবধি খাজনা দাখিলা কেটে ভোগ দখল করে আসছি। আমার সন্তানেরা ঢাকায় চাকুরী করেন বিধায় আমি ও আমার স্ত্রী ঢাকায় বসবাস করি। এই সুবাধে মোঃ আরজ আলী মোল্যা আমার জমিতে অবৈধ দখল দেওয়ার উদ্দেশ্যে নানান ষড়যন্ত্র করছে। যার ফলে আমার জমির উপর গত ০৮.০৮.২০২১ ইং তারিখে ৪ খানা বাশঁ পুতে একচালার মত করে দখল বোঝাতে চাচ্ছে। অথচ আরজ আলীই বাদী হয়ে গত মাসের ১৯/০৭/২০২১ ইং তারিখে জমির উপর কাঃ বিঃ ১৪৪ ধারা জারি করান। জমির উপর বাশেঁর একচালা তৈরি প্রসঙ্গে নড়াগাতি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) মোঃ ইকরাম হোসেন বলেন, মোঃ আরজ আলী মোল্যা গত ০৮.০৮.২০২১ ইং তারিখে বিজ্ঞ আদালতের কাঃ বিঃ ১৪৪ ধারা অমান্য করে বাশেঁর ঘর তৈরি করতে গেলে আমরা খবর পেয়ে বাধা দিয়ে কাজ বন্ধ করে দেই। বাদী মোঃ আরজ আলী মোল্যা বলেন,এখানে আমার ৩৬ শতক জমি আছে এবং আমি ভোগ দখল করে আসছি। এ বিষয়ে জয়নগর ইউনিয়নের উপ-সহকারী ভ’মি কর্মকর্তা (তহশিলদার) মোঃ ইদ্রিস আলী বলেন,আদালতের নির্দেশে সরেজমিন দেখতে এসেছি এবং সত্য ঘটনা আদালতকে জানাবো। এ বিষয়ে কালিয়া উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভ’মি) মোঃ জহিরুল ইসলাম বলেন, জোর পূর্বক বাশেঁর একচালা বা ঘর তৈরি করলেই জমির দখলকারী বা মালিক বলে ধরে নেওয়া যায়না। কাগজপত্র ও সংশ্লিষ্ট সকল বিষয় যাচাই বাছাই করেই এ বিষয়ে প্রতিবেদন দেওয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here