কাশিমপুরে ১০ লাখ টাকা চাঁদা না পেয়ে চার লাখ টাকার মালামাল লুটের অভিযোগে মামলা

0
111

স্টাফ রিপোর্টার : যশোর সদর উপজেলার কাশিমপুর ইউনিয়নে এক সেচ ব্যবসায়ীর কাছ থেকে ১০ লাখ টাকা চাঁদাদাবি ও টাকা না পেয়ে গভীর নলকূপ লুটের অভিযোগে ১৭ জনের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা হয়েছে। গত ১১ আগস্ট মামলাটি করেছেন একই এলাকার আবু বাক্কারের ছেলে আব্দুর রশিদ। আসামিরা হলেন, ওই এলাকার ইসহাক তরফদার, আতিয়ার রহমান, আমিন মোল্যা, ফসিয়ার রহমান, রাসেল হোসেন, জাহাঙ্গীর হোসেন, মোহাম্মদ সেলিম, শিমুল হোসেন, পান্নু হোসেন, নান্নু হোসেন, নাজিম হোসেন, শামীম হোসেন, মোহাম্মদ বাবু, মোহাম্মদ খোকন,মোহাম্মদ শিমুল, রবি ও লোকমান।
অভিযোগটি আমলে নিয়ে জুডিসয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সাইফুদ্দীন হোসাইন পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন।
মামলায় বাদী উল্লেখ করেন, কাশিমপুর মৌজায় তার জমিতে ২০১৫ সালে গভীর নলকূপ স্থাপন করে এলাকার মানুষের সেচের পানি সরবরহ করে আসছেন। বিষয়টি নিয়ে আসামিরা ঈর্শাকাতর হতে থাকে। এক পর্যায় ব্যবসা পরিচালনা করতে হলে ১০ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে। টাকা না দেয়ায় আসামিরা ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে ও নানা ধরণের হুমকি ধামকি দিতে থাকে। সর্বশেষ গত ২৯ জুলাই সকাল সাড়ে নয়টায় আসামিরা সহ অজ্ঞাত আরও ১৫/১৬ জন হাতে লোহার রড, শাবল, গাছি দা, নলকূপ খোলার যন্ত্রাংশ নিয়ে বাদীর নলকূপের জমিতে আসে। চাঁদার ১০ লাখ টাকা না পেয়ে নলকূপ খলে নেয়। এবং জমিতে থাকা ৩৫শ’ ইট লুট করে। এবং যাবার সময় বাদীর গলায় গাছি দা ধরে এ বিষয়ে মামলা মকদ্দমা না করার হুমকি দিয়ে যায়। পরে বাদী গত ৫ আগস্ট কোতোয়ালি থানায় মামলা করতে গেলে পুলিশ আদালতে মামলা করার পরামর্শ দেয়। আসামিরা বাদীর গভীর নলকূপ ও ইটবাবদ চার লাখ টাকা লুট করেছে বলে মামলায় উল্লেখ করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here