মণিরামপুরে বসতঘর থেকে বের করে দেওয়া সেই পরিবারটি এখনো পথে পথে, অবশেষে আদালতে মামলা

0
114

স্টাফ রিপোর্টার :- জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধকে পুজি করে একটি পরিবারকে বসতঘর থেকে বের করে ভোগ দখলে সম্পত্তিসহ ঘরটি জোরপূর্বক দখল করার চেষ্টা করেছে অপর একটি পরিবার। এমনকি ওই বসতঘরে তালা মেরে দখলে নিয়েছে তারা। ফলে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারটি বিগত ১৫ দিন ধরে পথে পথে ঘুরে বেড়াচ্ছে। বিষয়টি নিয়ে স্থানীয় পরিষদে কয়েকদফা শালিসী বৈঠক হলেও কোন সমাধান না পেয়ে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার অবশেষে আদালতে মামলা দায়ের করেছে। ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার সুত্রে ও মামলার বিবরণে জানা যায়, মনিরামপুর উপজেলার চালুয়াহাটি ইউনিয়নের রত্নেশ্বরপুর গ্রামের সোহরাব হোসেনের সাথে একই গ্রামের ইসহাক আলি গং দের জমিজমা নিয়ে দীর্ঘদিন বিরোধ চলে আসছে। হামলা মামলার এক পর্যায় গত ৩ আগস্ট ইসহাক আলী গংরা দেশীয় অস্ত্র নিয়ে বাড়িতে প্রবেশ করে বিভিন্ন ভাবে ভয়ভীতি দেখিয়ে সোহারবের পরিবারকে বসতঘর থেকে জোরপূর্বক বের করে দিয়ে ঘরে থাকা নগদ ১ লাখ টাকা ও প্রায় ২ লাখ টাকার সোনার গহনাসহ অন‍্যন‍্য মালামাল নিতে থাকে। এ সময় সোহারবের প্রতিবেশিরা আসতে থাকলে তারা ওই ঘরে তালা মেরে বসতঘরটি নিজেদের দখলে নিয়ে মালামাল চলে যায়। এ ঘটনায় সোহারব বাদী হয়ে ইসহাক আলী, আবু মুসা, আবু বক্কর, মুস্তফা গাজী, মোহম্মাদ গাজীসহ ১০ জনকে আসামী করে যশোরের বিজ্ঞ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলী আদালতে মামলা দায়ের করেছে। এ দিকে ঘটনার দিন থেকে আজ পর্যন্ত বসতঘর থেকে বের করে দেওয়া ওই পরিবারটি শিশু বাচ্চাকে নিয়ে পথে-পথে ঘুরে বেড়াচ্ছে ও মানবেতর জীবনযাপন করছে।
এ বিষয়ে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের সোহরাব হোসেেন জানান, বিষয়টি প্রশাসন ও স্থানীয়়় জনপ্রতিনিধিদের নজরে রয়েছে।এমনকি স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদে কয়েক দফা শালিসী বৈঠক বসলেও বিষয়টি এখনো সমাধান হয়নি। যার কারণে আমি পরিবার-পরিজন নিয়ে অতি কষ্টে দিনাতিপাত করছি।
আমি যেন দ্রুত বসতঘরে উঠতে পারি তার সুব‍্যবস্থা করতে প্রশাসনের প্রতি হস্তক্ষেপ কামনা করছি। এ বিষয়ে স্থানীয় চেয়ারম্যান আবদুল হামিদ সরদার বলেন, উপরের কর্মকর্তাদের পরামর্শে আমি বিষয়টি মীমাংসার জন্য তিন দফা পরিষদের বৈঠক বসাইছি। এখনো পর্যন্ত কোন সমাধানে আসেনি। তবে চেষ্টায় আছি অচিরেই সমাধান করার জন‍্য।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here