মণিরামপুরে বাস চাপায় ২ ভাই হতাহত

0
121

স্টাফ রিপোর্টার, যশোর থেকে : যশোরের মণিরামপুরে বাসের ধাক্কায় সাহাবুদ্দিন (৪০) নামে একজন কাঠ ব্যবসায়ীর মৃত্যু হয়েছে। একই ঘটনায় আহত হয়েছেন তার ছোটভাই মঈনুদ্দিন (৩৫)।
গতকাল সোমবার সকাল আটটার দিকে যশোর-চুকনগর সড়কের সুন্দলপুর দিপ্র ইটভাটার সামনে ঘটনাটি ঘটে। হতাহতরা উপজেলার মাঝলাউড়ি গ্রামের সিরাজুল ইসলাম খোকার ছেলে।
এদিকে, দুর্ঘটনার পর চিনাটোলা বাজারে বাস ফেলে পালিয়ে যায় চালক, হেলপার ও সুপারভাইজার। স্থানীয়রা বাসটি (ঢাকা মেট্রো-ব ১৪-৭৭০০) আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে।
প্রত্যদর্শী মাসুদ রানা বলেন, ঘটনাস্থলের পাশে দাঁড়িয়ে দুই তিনজন কথা বলছিলাম। হঠাৎ বিকট শব্দ শুনে সামনে তাকিয়ে দেখি মোটরসাইকেল পড়ে আছে। পাশে দুইজন পড়ে ছটফট করছেন। গিয়ে দেখি একজন মারা গেছেন। অন্যজনকে ভ্যানে তুলে হাসপাতালে পাঠিয়ে দিই। রাস্তা ভাঙা হওয়ায় পরিবহনটি বাঁক নিতে গিয়ে মোটরসাইকেলটিকে ধাক্কা দেয়।
নিহতের চাচা শহিদুল ইসলাম বলেন, সকালে মইন ও সাহাবুদ্দিন মোটরসাইকেলে করে মণিরামপুর বাজারে যাচ্ছিল। মইন মোটরসাইকেল চালাচ্ছিল। পথিমধ্যে ইটভাটার সামনে বাসের ধাক্কায় সাহাবুদ্দিন ঘটনাসএথই মারা গেছে। আহত মঈনুদ্দিনকে যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তার অবস্থা আশংকাজনক বলে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন।।
মণিরামপুর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক দিবাকর মন্ডলের বরাত দিয়ে ওয়ার্ডবয় আশীষ দাস বলেন, ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা মইনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠিয়েছিল। তার ডান পায়ে হাঁটুর নিচে দুইস্থানে ভেঙেছে। উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে যশোর জেনারেল হাসপাতালে রেফার করা হয়েছে।
মণিরামপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) শিকদার মতিয়ার রহমান দুর্ঘটনায় দুই ভাইয়ের হতাহতের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, মামুন পরিবহনের ওইবাসটি আমাদের হেফাজতে আছে। চালক ও হেলপার পলাতক রয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here