চৌগাছায় স্কুল মাঠের সেই বলুহ মেলা উচ্ছেদে প্রশাসন-পুলিশের অভিযান

0
135

চৌগাছা (যশোর) প্রতিনিধি : যশোরের চৌগাছার হাজরাখানা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠ ও সীমানার চারপাশে অনুমতি ছাড়া চলা বলুহ মেলা উচ্ছেদ করা হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে সহকারী কমিশনার (ভূমি) কাফী বিন কবির ও চৌগাছা থানার ওসি সাইফুল ইসলাম সবুজের নেতৃত্বে এই মেলা উচ্ছেদ করা হয়। এ প্রতিবেদন লেখার সময় বিকাল চারটায় মেলার মাঠ থেকে স্থানীয়রা মুঠোফোনে জানান, দোকানীরা তাঁদের দোকান তুলে নিয়ে কেউকেউ চলে গেছেন। কেউকেউ চলে যাওয়ার জন্য প্রস্তুত হচ্ছেন। এ বিষয়ে সহকারী কমিশনার (ভূমি) কাফী বিন কবির বলেন, মেলার কোন অনুমতি ছিলো না। তবুও তাঁরা স্কুল মাঠের আশেপাশে মেলা বসিয়েছেন। সব দোকানীকে আজ মঙ্গলবার (২১ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যার মধ্যে তাঁদের মালামাল সরিয়ে নেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। আগামীকাল মাঠে কোন দোকান থাকলে আইনী ব্যবস্থা নেয়া হবে।
এর আগে গত শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) অনুমতিবিহীন মেলা বন্ধের জন্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এবং ওসির কাছে আবেদন করেন বলুহ দেওয়ানের মাজার কমিটির সভাপতি আশাদুল ইসলাম আশা। এরপরও মেলা বন্ধ না করে স্থানীয় প্রভাবশালীদের ইশারায় মাজারের আশপাশ থেকে দোকান তুলে গ্রামের প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে ও চারপাশে বসানো হয়। বিষয়টি নিয়ে সোম ও মঙ্গলবার বিভিন্ন অনলাইন এবং জাতীয় ও স্থানীয় পত্রিকায় সরেজমিন প্রতিবেদন ছাপা হয়। এরপরই মঙ্গলবার বেলা সাড়ে এগারোটার দিকে সহকারী কমিশনার (ভূমি) কাফী বিন কবির ও চৌগাছা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাইফুল ইসলাম সবুজের নেতৃত্বে অভিযান চালিয়ে মেলার মাঠে গিয়ে দোকানপাট উঠিয়ে নেয়ার নির্দেশ দেন। এসময় তাঁদের সাথে থানার ২য় কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক (এস আই) মেহেদী হাসান, ডিএসবির উপ-পরিদর্শক (এসআই) সিদ্ধার্থ সাহাসহ পুলিশ ও আনছার সদস্যরা ছিলেন। অভিযানের সময় মেলা মাঠে অবস্থিত হাজরাখানা জামে মসজিদের মাইকে মাঠ থেকে সকল দোকান উঠিয়ে নেয়ার নির্দেশনা ঘোষণা করে দেয়া হয়েছে। প্রতি বাংলা সনের ভাদ্রমাসের শেষ মঙ্গলবার উপজেলার হাজরাখানা গ্রামে কপোতাক্ষ নদের তীরে পীর বলুহ দেওয়ানের মাজার ঘিরে বসে এই মেলা। বলুহের মাজার ঘিরে হয় ঔরশ। প্রতি বছরের মতো গ্রামের ইউপি সদস্য মনিরুজ্জামান যশোরের জেলা প্রশাসকের কাছে মেলার অনুমতি চেয়ে লিখিত আবেদন করেন। জেলা প্রশাসন করোনা ভাইরাসের কারনে গত বছরের ন্যায় এবারো মেলার অনুমতি না দিলেও মৌখিক অনুমতিতে একদিনের (১৪ সেপ্টেম্বর) জন্য পীর বলুহ দেওয়ানের ঔরস অনুষ্ঠিত হয়। তবে ঔরস চলে তিনদিন। চৌগাছা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাইফুল ইসলাম সবুজ বলেন গত ১৮ সেপ্টেম্বর মাজার কমিটির সভাপতির আবেদনের প্রেক্ষিতে মাজার এলাকা থেকে দোকানপাট উঠিয়ে দেয়া হয়। তবুও তাঁরা সেসব দোকান বিদ্যালয়ের চারপাশে বসায়। আমরা উপস্থিত থেকে তাঁদের দোকান সরিয়ে নেয়ার সময় দিয়েছি। মঙ্গলবার সন্ধ্যার মধ্যেই ব্যবসায়ীরা দোকান সরিয়ে নেবেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here