সামাজিক ও দলীয় কোন্দল নিরসনে নলডাঙ্গায় আওয়ামী লীগের আস্থা কবির হোসেন বিশ্বাস

0
136

কামরুজামান লিটন ঝিনাইদহ : ঝিনাইদহ সদর উপজেলার একটি গুরুত্বপূর্ণ ইউনিয়ন ১৭ নং নলডাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদ। ঝিনাইদহ সদর উপজেলার ৪টি ইউনিয়ন ও কালীগঞ্জ উপজেলা নিয়ে ঝিনাইদহ-৪ সংসদীয় নির্বাচনী এলাকা। নলডাঙ্গা তার মধ্যে একটি। নলডাঙ্গা জেলার একটি অন্যতম সন্ত্রাসী অধ্যুষিত এলাকাও বটে। রাজনীতির সাথে জড়িত প্রায় সকলেই হামলা-মামলার শিকার। মার্ডার হয়েছেন কয়েকজন সাবেক চেয়ারম্যান। ২০১৬ সালের ইউপি নির্বাচনে নৌকা প্রতীক নিয়ে এই ইউনিয়ন পরিষদে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হোন তরুণ সমাজ সেবক মোঃ কবির হোসেন। কবির হোসেন ঝিনাইদহ জেলার সবচেয়ে কম বয়সী চেয়ারম্যান।সামাজিক দলাদলি-রাজনৈতিক গ্রুপিং উপো করে তিনি বিপুল ভোটে নির্বাচিত হোন। ইউপি চেয়ারম্যান কবির হোসেন মতার ৫ বছরে কয়েকবার হামলা-মামলার শিকার হয়েছেন। আসন্ন ইউপি নির্বাচন ঘিরে আলোচনা শুরু হয়েছে এই ইউনিয়নে। সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থীরা ভোটারদের সাথে যোগাযোগ শুরু করেছেন। যোগাযোগ রাখছেন দলীয় হাইকমান্ডের সাথেও। এই ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ থেকেই এবার ৫-৬ জন মনোনয়ন প্রত্যাশির নাম শোনা যাচ্ছে। কিন্তু জনপ্রিয়তায় শীর্ষে রয়েছেন বর্তমান চেয়ারম্যান কবির হোসেন। কবির হোসেন এই ৫ বছরে নলডাঙ্গা ইউনিয়ন থেকে সামাজিক কোন্দল নিরসনে ব্যপক কাজ করেছেন। উন্নয়নের ছোয়া পৌছে দিয়েছেন ইউনিয়নের প্রত্যেকটি গ্রামে-পাড়া,মহল্লায়। সামাজিক নিরাপত্তামূলক ভাতায় টাকা লেনদেন বন্ধ করে ইউনিয়ন পরিষদকে তৈরি করেছেন জনবান্ধব হিসাবে। অসহায়,রোগাক্রান্ত দরিদ্র মানুষের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করেছেন সব সময়। তার এই ৫ বছরে সামাজিক কোন্দলের কারণে মার্ডার হয়নি একজনও। চেয়ারম্যান কবির হোসেনের উপর সন্তুষ্ট ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দও। ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু জাফর বলেন, কবির চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দের সাথে সমন্নয় করেই ইউনিয়নে উন্নয়নমূলক কাজ করে যাচ্ছেন। দলীয় নেতাকর্মীদের সাথে আলোচনা করেই মেম্বারদের মাধ্যমে তিনি ভিজিডি,ভিজিএফ সহ এলাকার রাস্তা-ঘাট,শিা প্রতিষ্ঠানে উন্নয়নমূলক বরাদ্দ দিয়েছেন। সঠিকভাবে কাজ করার চেষ্টা করেছেন। ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আঃ মজিদ বলেন,কবির হোসেন গতবারের তুলনায় এখন অনেক বেশি জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। সামাজিক রেশারেশি-কোন্দল মিটিয়ে এলাকায় শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রাখতে তার অবদান অনেক। ইউপি চেয়ারম্যান কবির হোসেন বলেন, আওয়ামী লীগ আমাকে গতনির্বাচনে নৌকা প্রতীকের মনোনয়ন দিয়েছিল। আমি চেষ্টা করেছি আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে শেখ হাসিনার উন্নয়ন প্রান্তিক পর্যায়ে পৌছে দিতে। আমাকে কয়েকবার হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা করা হয়েছে। তাতেও আমি ঘরে বসে থাকিনি। অনেকেই নির্বাচন করতে চায়। তারা বিভিন্ন সময়ে আমার নামে বদনাম করার চেষ্টা করেছে।হত্যার চেষ্টা করেছে। তারপরেও আমি থেমে থাকিনি।আমি ৫ বছরে ইউনিয়নে অবকাঠামোগত ব্যাপক উন্নয়ন করেছি। দল আমাকে পূণরায় মনোনিত করলে নলডাঙ্গা ইউনিয়নকে একটি মডেল হিসাবে প্রতিষ্ঠিত করবো।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here