আজ শেখ রাসেল দিবস দিবসটি যথাযথ মর্যাদায় পালনে যশোর জেলা প্রশাসনের দিনব্যাপী কর্মসূচী গ্রহণ

0
129

স্টাফ রিপোর্টার : আজ ১৮ অক্টোবর শেখ রাসেল দিবস ২০২১। প্রথমবারের মতো সারাদেশে ‘ক’ শ্রেণির দিবস হিসেবে পালিত হতে যাচ্ছে।
দিবসটি যথাযোগ্য মর্যাদায় পালন করার জন্য যশোর জেলা প্রশাসন বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। সকাল সাতটায় জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে স্থাপিত শেখ রাসেলের প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে দিবসটির কার্যক্রম শুরু হবে। সকাল ১১ টায় জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে শেখ রাসেলের জন্মদিন উপলে শিশু পরিবারের শিশুদের নিয়ে কেক কাটা হবে। জেলা শিশু পরিবারের শিশুদের সাথে মুক্তিযোদ্ধারা কেক কাটবেন । সকাল ১১ টায় জেলা প্রশাসনের আয়োজনে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে। এবারের শেখ রাসেল দিবসের প্রতিপাদ্য বিষয় ‘শেখ রাসেল, দীপ্ত জয়োল্লাস, অদম্য আত্মবিশ্বাস’। ইতোমধ্যে স্কুল পর্যায়ে দুইটি গ্রুপের মধ্যে প্রতিপাদ্য বিষয় ভিত্তিক উপস্থিত বক্তৃতার প্রতিযোগীতা শেষ হয়েছে। দুটি গ্রুপের সেরা কিশোর কিশোরি বক্তারাও আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখবে। এছাড়াও ‘প্রিয় রাসেল’ বিষয়ে পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশন প্রতিযোগীতারও আয়োজন করা হয়েছে। বিজয়ীদের মধ্যে আলোচনা সভা শেষে পুরস্কার বিতরণ করা হবে। এ উপলে যশোর জেলার তিনটি শেখ রাসেল ল্যাবকে শ্রেষ্ঠ ল্যাব নির্বাচন করা হয়েছে। তাদের মধ্যেও পুরস্কার বিতরণ করা হবে।
আজ ১৮ অক্টোর বিকাল সাড়ে তিনটায় ঈদগাহ মাঠে জেলা স্কুল বনাম কালেক্টরেট স্কুল প্রীতি ফুটবল ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। উপস্থিত স্কুল কলেজের শিার্থীদের নিয়ে খেলার মাঠেই কুইজ প্রতিযোগীতার আয়োজন করা হবে। বিজয়ীদের জন্য থাকছে আকর্ষণীয় পুরস্কার।
এছাড়াও জেলার বিভিন্ন মসজিদে সুবিধাজনক সময়ে শেখ রাসেলের রুহের মাগফেরাত কামনায় মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হবে । বাদ আসর কালেক্টরেট মসজিদে মিলাদ শরীফ অনুষ্ঠিত হবে ।
জেলার মতো যশোরের প্রতটি উপজেলা ও ইউনিয়ন পর্যায়েও শেখ রাসেলের প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তবক অর্পণ করা হবে। এছাড়াও শেখ রাসেল ল্যাবে ঢাকার অনুষ্ঠান সম্প্রচার করা হবে।
শেখ রাসেল দিবস উপলে জেলা প্রশাসন ও যশোর পৌরসভা যশোরের বিভিন্ন এলাকায় ডিসপ্লে বোর্ড স্থাপন করেছে । শহরের চারখাম্বা মোড়ের শেখ রাসেল চত্বরকে সাজানো হয়েছে বর্ণিল সাজে। রেল রোডে করা হয়েছে আলোক সজ্জা। এদিকে দিবসটি উপলক্ষে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানও দিনব্যাপী নানা কর্মসূচী গ্রহণ করেছে।
প্রতিবছর ১৮ অক্টোবর শেখ রাসেল দিবস হিসেবে তথ্য ও প্রযুক্তি বিভাগের উদ্যোগে পালন করা হবে। বর্তমান প্রজন্মের শিার্থীদেরকে উন্নত বাংলাদেশের নাগরিক হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করার প্রত্যয়ে শিশু কিশোরদের মাঝে শেখ রাসেলের স্মৃতি অম্লান রাখার উদ্দেশ্যে শেখ রাসেল দিবস পালন করা হচ্ছে। আগামী দিনে বাংলাদেশকে পরিচালনা ও নেতৃত্ব দানের েেত্র শেখ রাসেলের দীপ্ত প্রত্যয়কে হৃদয়ে ধারণ করে তারা উন্নত বাংলাদেশ গড়ার শক্তিতে বলিয়ান হবে- এটাই প্রত্যাশা ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here