শ্যামনগরে নাশকতা মামলার আসামি কর্তৃক কৃষকের জমির নাম পত্তনে বাধা দেয়ার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

0
90

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি ঃ সাতক্ষীরার শ্যামনগরে নাশকতা মামলার আসামী আমির আলী কর্তৃক মিথ্যা ও জাল কাগজ পত্র তৈরী করে এক কৃষকের ভোগদখলীয় সম্পত্তি নিয়ে আদালতে মামলা দিয়ে তার নাম পত্তনে বাধা সৃষ্টি করছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। বৃহস্পতিবার সকালে সাতক্ষীরা প্রেসকাবের আব্দুল মোতালেব মিলনায়তনে এর প্রতিবাদ জানিয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছেন, উপজেলার নকিপুর মঠবাড়ী গ্রামের গোলাম গাজীর পুত্র ভুক্তভোগী কৃষক মহাসিন আলী গাজী। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, শ্যামনগর উপজেলার মঠবাড়ী গৌরিপুর মৌজায় বিএস ৪০ খতিয়ানের মালিক জনৈক আব্দুল হামিদ। উক্ত আব্দুল হামিদের কাছ থেকে বিগত ২৯/০৩/২০১০ তারিখে ১২০৩ নং দলিলে ৪১ শতক জমি আমি খরিদ করিয়া সেখানে ভোগ দখল করে বসবাস করে আসছি। ওই একই মালিকের কাছ থেকে বিগত ১৯/০৩/২০১৩ তারিখে ১১৮০ নং দলিলে সাড়ে ১৬ শতক জমি একই এলাকার আমির আলীর নাবালিকা কন্যা জান্নাতুল ফেরদৌস খরিদ করে। তিনি বলেন, আমি হাল ১০৬ দাগে ২৯শতকসহ অন্যান্য দাগ মিলিয়ে ৪১ শতক জমি ভোগ দখল করে বসবাস করে আসছি। অথচ উক্ত আমির আলী মিথ্যা, জাল ও তঞ্চকী কাগজ পত্র তৈরী করে আদালতে মামলা দায়ের করে আমার সম্পত্তির মিউটেশন যাতে না করতে পারি সে জন্য বিভিন্নভাবে ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছেন। এই আমির আলী ইতিপূর্বে বিভিন্ন কায়দায় হিন্দু ও মুসলিম অসহায় মানুষের জমি জাল ও তঞ্চকীভাবে ভোগ দখল করেছেন। এভাবে তিনি বর্তমানে ৩০/৩৫ বিঘা জমির মালিকও হয়েছেন। তিনি একজন জামাত-শিবিরের নাশকতা মামলার আসামী। যার শ্যামনগর থানার মামলা নং-জি,আর-২২০/১৮। তিনি আরো বলেন, আমির আলী গত ২৫ অক্টোবর সাতক্ষীরা প্রেসকাবে গিয়ে সাংবাদিকদের ভুল তথ্যদিয়ে একটি সংবাদ সম্মেলন করেছেন। যা সম্পুর্ণ মিথ্য, ভিত্তিহীন ও বানোয়াট। সংবাদ সম্মেলন থেকে তিনি এ সময় প্রকৃত সত্য ঘটনা তুলে ধরে সাংবাদিকদের নিউজ করার আহবান জানান। একই সাথে তিনি তার তার সম্পত্তি যাতে সঠিক ভাবে মিউটেশন করতে পারেন এবং উক্ত জাল আমিরের হাত থেকে যাতে পরিত্রান পেতে পারেন সে জন্য জেলা প্রশাসনসহ উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here