সাতক্ষীরা বৈকারীতে নৌকা ও স্বতন্ত্র প্রার্থীর কর্মী সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে আহত ১৭, গ্রেপ্তার-৮

0
102

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি ঃ সাতীরা সদর উপজেলার বৈকারী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে নৌকা ও মোটরসাইকেল প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ কমপক্ষে ১৭ জন আহত হয়েছে। বুধবার সন্ধ্যায় সাতীরা সদর উপজেলার ঘোনা বিজিবি ক্যাম্প সংলগ্ন কোয়ারপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় আজ বৃহস্পতিবার বিকাল পর্যন্ত মোট ৮ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এর আগে এ ঘটনায় নৌকার প্রার্থী ও বর্তমান চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান অসলে বাদি হয়ে বৃহস্পতিবার রাতে ১৫ জন জ্ঞাত ও অজ্ঞাত ৫০/৬০ জনকে অঅসামী করে সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বৈকারী ইউনিয়নে চেয়ারম্যান প্রার্থী আবু মো. মোস্তফা কামাল মোটরসাইকেল প্রতিক পাওয়ার পর সন্ধ্যার দিকে সাতক্ষীরা থেকে মোটরসাইকেল শোডাউন নিয়ে এলাকায় যান। পথিমধ্যে ঘোনা বিজিবি ক্যাম্প সংলগ্ন কোয়ারপাড়া এলাকায় পৌছালে নৌকার প্রার্থী আসাদুজ্জামান অসলের বড় ছেলে মো. ইনজামুল হক ইমজা নৌকার কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে মোটরসাইকেল প্রতীকের শোডাউনে বাঁধা প্রদান করলে এ সংঘর্ষ বাঁধে। এ সময় টহলরত সাতীরা জেলা গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) একটি দল ঘটনাস্থালে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। এ ঘটনায় আহতরা হলেন, মোটর সাইকেল প্রতিকের কর্মী আয়ুব আলী ভুট্টো, আনিসুর রহমান, মুনছুর আলী, শিমুল হোসেন, ছবুর আলী, রাশেদুজ্জামান, শাহীন, নৌকা প্রার্থীর ছেলে এনজামুল হক ইমজা ও হৃদয় হোসেনসহ ১৭ জন। বৈকারী ইউনিয়ন পরিষদের মোটরসাইকেল প্রতীকের প্রার্থ প্রার্থী আবু মো. মোস্তফা কামাল জানান, বিকালে মোটরসাইকেলে করে কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে সাতক্ষীরা শহর থেকে এলাকায় যাচ্ছিলাম। এসময় অসলের ছেলে ইমজার নেতৃত্বে সন্ত্রাসী বাহিনী আমাদের ওপর আক্রমণ করে। এতে আমার কমপক্ষে ৯ জন কর্মী আহত হন। এছাড়া সন্ত্রাসীরা বৃহস্পতিবার সকালেও আমার কর্মী-সমর্থকদের ওপর হামলা করে। নৌকার প্রার্থী চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান অসলে জানান, মোস্তফা কামালের সন্ত্রাসী বাহিনী আমার দুই ছেলে ইনজা ও হৃদয়সহ কমপক্ষে ৮ জন কর্মীকে পিটিয়ে আহত করে। রাতে আমার ঘর-বাড়ি ভাঙচুর করে তারা। সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দেলোয়ার হুসেন জানান, বৈকারীর এ ঘটনায় আসাদুজ্জামান অসলে বাদি হয়ে সাতক্ষীরা সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। ইতিমধ্যে এ ঘটনায় জড়িত ৮ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তিনি আরো বলেন, বাকী আসামীদের ধরতে পুলিশি অভিযান অব্যাহত আছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here