প্রতিক পেয়েও নির্বাচন প্রত্যাহার করলেন আবুল কালাম / মহম্মদপুরে ইউপি নির্বাচনে নৌকার মাঝি পরিবর্তন

0
115

মহম্মদপুর (মাগুরা) প্রতিনিধি : আসন্ন ইউপি নির্বাচনে মাগুরার মহম্মদপুর উপজেলার ৫নং বালিদিয়া ইউনিয়নে নৌকার মাঝি পরিবর্তন নিয়ে ধুম্রজালের সৃষ্টি হয়েছে। এই ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের দলীয় মনোনয়ন দেওয়া হয় প্রবীণ রাজনীতিবিদ ও প্রাক্তণ চেয়ারম্যান আবুল কালাম ফকিরকে। মনোনয়ন পেয়ে তিনি দলীয় নেতাকর্মী ও সমর্থক নিয়ে মোটরসাইকেল শোডাউন ও জোরালো প্রচার-প্রচারণাও শুরু করেন। কিন্তু শারীরিক অসুস্থতার জন্য নৌকা প্রতিক পেয়েও ছেড়ে দিলেন আবুল কালাম ফকির। গত শনিবার রাতে তিনি নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন। শারীরিক অসুস্থতা দেখিয়ে তিনি প্রার্থীতা প্রত্যাহারের জন্য জেলা কমিটির কাছে লিখিতভাবে জানিয়েছেন। তবে হঠাৎ করে কেন তার এই সিদ্ধান্ত! নিয়ে সবমহলেই ধূম্রজালের সৃষ্টি হয়েছে। নানা গুঞ্জন চাউর হচ্ছে সর্বত্র। পরিবর্তিত নৌকার মাঝি কে হবে এ নিয়েও চলছে জল্পনা-কল্পনা। তবে মানুষের মুখে মুখে বেশী শুনা যাচ্ছে সাবেক চেয়ারম্যান মফিজুর রহমান মিনার কথা। জানা যায়, উপজেলার বালিদিয়া ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে আবুল কালাম ফকির আওয়ামীলীগের দলীয় মনোনয় পান। মনোনয়ন পেয়ে তিনি নির্বাচনী কার্যক্রমও শুরু করেন। অপর দিকে এই ইউনিয়নের আ’লীগ নেতা সাবেক চেয়ারম্যান মফিজুর রহমান মিনা এবং বর্তমান চেয়ারম্যান মো. পান্নু মোল্যাও নির্বাচনে অংশ গ্রহণের ঘোষণা দেন। তারা দু’জনই শক্তিশালী প্রার্থী। কিন্তু আকস্মিকভাবে আবুল কালাম ফকির অসুস্থতার কারণ দেখিয়ে নির্বাচনে অংশ গ্রহণ বা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে অপারগতা প্রকাশ করেন। এ বিষয়ে জানতে চাইলে আবুল কালাম ফকিরের ছেলে কবিরুল ইসলাম বলেন, আব্বা খুবই অসুস্থ্য। ডাক্তার দেখানোর জন্য রাজধানীর সোহরওয়ার্দী হাসপাতালে গেছেন। উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এ্যাড. আব্দুল মান্নান জানান, অসুস্থতার কারণে তিনি নির্বাচন করতে অপরাগতা প্রকাশ করে জেলা কমিটির কাছে লিখিতভাবে জানিয়েছেন। নির্বাচন কমিশনের ঘোষিত তফসিলে অনুযায়ী আগামী ২৮ নভেম্বর তৃতীয় ধাপে উপজেলার আটটি ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এসব ইউনিয়নে মনোনয়ন দাখিলের শেষ তারিখ ২ নভেম্বর। যাচাই-বাছাই ৪ নভেম্বর। মনোনয়ন প্রত্যাহার ১১ নভেম্বর।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here