কালীগঞ্জে বেড়েছে সর্দি কাশি ডায়রিয়া

0
110

মাহাবুবুর রহমান, কালীগঞ্জ ( ঝিনাইদহ ) থেকে ॥ ঝিনাইদহ কালীগঞ্জে ঠান্ডাজনিত রোগ সর্দি-কাশি, নিউমোনিয়া ও ডায়রিয়ার প্রকোপ দেখা দিয়েছে। প্রতিদিন শিশু ও বৃদ্ধাসহ মানুষ এসব রোগে আক্রান্ত হয়ে কালীগঞ্জ হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছে। প্রতিদিন ১৫ থেকে ২৫ জন শিশু-ডায়রিয়া ওয়ার্ডেই ভর্তি হচ্ছেন। সিট না পেয়ে বারান্দা-করিডোরে অবস্থান করতে হচ্ছে রোগী ও তাদের স্বজনদের। প্রায় এক সপ্তাহ ধরে এ সব রোগির প্রকোপ বৃদ্ধি পেয়েছে। ধারণ মতার বেশি রোগী আসায় চিকিৎসা দিতে হিমশিম খেতে হচ্ছে চিকিৎসকসহ সংশ্লিষ্টদের। রোগীরা এক সপ্তাহ ধরে হাসাপাতালে ভর্তি হলেও তাদের জন্য বেড বরাদ্ধ দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না। জরুরি বিভাগেও রোগীর বাড়তি চাপ দেখা গেছে। শিশু ও ডায়রিয়া ওয়ার্ডে মানুষ গাদাগাদি করে অবস্থান করছেন। কাউকে স্বাস্থ্যবিধি মানতে দেখা যায়নি। বেশি সংখ্যক রোগীকে হাসপাতালে চিকিৎসা দিতে হিমশিম খেতে হচ্ছে। হাসপাতালে ওষুধ রয়েছে সংকট। রোগিরা সব ওষুধ না পেয়ে বাইরে থেকে কিনে রোগিদের খাওয়াচ্ছে। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বলছে কালীগঞ্জে ঠান্ডাজনিত রোগ সর্দি-কাশি, নিউমোনিয়া ও ডায়রিয়ার প্রকোপ দেখা দিয়েছে। প্রতি বছর শীতের মৌসুম শুরুর আগেই অল্পসংখ্যক শীতজনিত রোগে আক্রান্ত রোগী পাওয়া যায়। কিন্তু এক সপ্তাহ ধরে শীত না থাকলেও অসুস্থ মানুষের সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে। শুক্রবার শিশু রোগি ২৮ জন ভর্তি ছিল, এদের সবারই নিউমোনিয়া আক্রান্ত ও ডায়রিয়া রোগি। এ সব শিশু বাচ্চাদের সুস্থ হতে অন্তত ৬ থেকে ৭ দিন সময় লাগছে। অনেক রোগি বেশি খারাপ অবস্থায় কালীগঞ্জ হাসপাতালে আনলে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তাদের কে ঝিনাইদহ বা যশোর সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়। বর্তমানে শিশুদের ঠান্ডা ও কাশি রোগির প্রকোপ বেশি বলে আরএমও জানান। কালীগঞ্জ হাসপাতালের আরএমও ডাক্তার মাজহারুল ইসলাম জানান, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ঠান্ডাজনিত রোগে শিশু, বয়স্কসহ নানা বয়সী মানুষ ভর্তি হচ্ছেন। তাদের কে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। একটু খারাপ রোগিদের ঝিনাইদহ ও যশোর সদর হাসপাতালে পাঠানো হচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here