চৌগাছায় ভোটের দিন কেন্দ্রে ব্যালট দাবি স্বতন্ত্র প্রার্থীদের

0
89

চৌগাছা (যশোর) প্রতিনিধি : যশোরের চৌগাছায় ভোট গ্রহণের দিন ব্যালট পেপার কেন্দ্রে নেয়ার দাবিতে লিখিত আবেদন করেছেন কয়েকজন স্বতন্ত্র প্রার্থী। তবে একটি ছাড়া কোন আবেদন জমা নেয়া হয়নি। রিটার্নিং কর্মকর্তারা প্রার্থীদের বলছেন নির্বাচন কমিশন এমন সিদ্ধান্ত নিলে তা বাস্তবায়ন করা হবে। গত ৫ নভেম্বর শুক্রবার চৌগাছার ভোটগ্রহণ (প্রিজাইডিং) কর্মকর্তাদের সাথে মতবিনিময় সভায় নির্বাচন কমিশনের অতিরিক্ত সচিব অশোক কুমার দেবনাথ বলেন প্রয়োজনে ব্যালট পেপার ভোট গ্রহণের দিন সকালে কেন্দ্রে নেয়া হবে। সে সময় কমিশনের যুগ্ম সচিব ফরহাদ আহাম্মদ খান, খুলনার আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মোঃ ইউনুচ আলী, জেলা সিনিয়র নির্বাচন কর্মকর্তা হুমায়ূন কবীর, চৌগাছা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আছাদুল হক, সহকারী কমিশনার (ভূমি) প্রকৌশলী কাফী বিন কবির, উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোঃ সেলিম রেজা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। এরআগে গত ৩১ অক্টোবর উপজেলা পরিষদে অনুষ্ঠিত যশোরের ডেপুটি কমিশনার ও পুলিশ সুপারের সাথে ১১ ইউনয়িনের চেয়ারম্যান ও সদস্য প্রার্থীদের মতবিনিময় সভায় আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী ও স্বতন্ত্র প্রার্থীরা ভোট গ্রহণের দিন সকালে ব্যালট পেপার কেন্দ্রে নেয়ার জন্য জোর দাবি জানান। তখন তাদের আস্বস্ত করা হয় বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা নেয়া হবে। উপজেলার ১১ ইউপি নির্বাচনের পাঁচ রিটার্নিং কর্মকর্তার সাথে কথা বলে জানা যায় কয়েকজন প্রার্থী লিখিত আবেদন নিয়ে তাদের কাছে গিয়েছিলেন। তবে এসব আবেদনের মধ্যে গত ৭ নভেম্বর পাতিবিলা ইউপির স্বতন্ত্র প্রার্থী আতাউর রহমানের আবেদন গ্রহণ করেন রিটার্নিং কর্মকর্তা ও উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আবুল কালাম মোঃ রফিকুজ্জামান। আবেদনে আতাউর রহমান লেখেন ‘অবাধ সুষ্ঠ নিরপেক্ষ ঝুকিমুক্ত নির্বাচনের লক্ষে নির্বাচনী ব্যালট পেপার ভোট গ্রহণের দিন ভোট শুরু হওয়ার পূর্বে ভোট কেন্দ্রে সরবরাহের জন্য অনুরোধ করছি।’ এ বিষয়ে রিটার্নিং কর্মকর্তা আবুল কালাম মোঃ রফিকুজ্জামান বলেন ‘পাতিবিলার একজন প্রার্থীর আবেদন পেয়েছি। তবে এ বিষয়ে কোন সিদ্ধান্ত এখনও পাইনি।’ হাকিমপুর ইউপির স্বতন্ত্র প্রার্থী মাসুদুল হাসান বলেন, আবেদন নিয়ে গিয়েছিলাম। তবে সেটা নেয়া হয়নি। এবিষয়ে রিটার্নিং কর্মকর্তা ও উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সমরেন বিশ^াস বলেন ‘লিখিত আবেদন পায়নি। কয়েকজন মৌখিকভাবে আবেদন করতে এসেছিলেন। আমরা বলেছি নির্বাচন কমিশন সিদ্ধান্ত নিলেই মাত্র সম্ভব। এখন পর্যন্ত আগেরদিন ব্যালট পেপার পাঠানোর সিদ্ধান্ত রয়েছে।’ সিংহঝুলি ইউপির স্বতন্ত্র প্রার্থী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহবায়ক মোঃ বাদল বলেন, আবেদন নিয়ে রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে গিয়েছিলাম। সেটা নেয়া হয়নি। তিনি বলেছেন দেয়া লাগবেনা। কমিশন যে সিদ্ধান্ত দেবে, সেটাই হবে। এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা পাল্টা প্রশ্ন করেন লিখিত আবেদন জানানোর কোন সিস্টেম আছে নাকি? ব্যালট পেপার যাবে তো নির্বাচন কমিশনের সিদ্ধান্ত মোতাবেক। অতিরিক্ত সচিবের উদ্ধৃতি দিলে তিনি বলেন এখনও সিদ্ধান্ত হয়নি। এখনও তো সময় আছে। সিদ্ধান্ত হলে সেভাবেই যাবে। এ বিষয়ে নির্বাচন কমিশনের অতিরিক্ত সচিব অশোক কুমার দেবনাথ মুঠোফোনে বলেন, ‘আমরা ইতিমধ্যে সিদ্ধান্ত দিয়ে দিয়েছি যেখানে যোগাযোগ ব্যবস্থা ভালো সেখানে সকালে ব্যলট পেপার যাবে। আমরা ডিসি (ডেপুটি কমিশনার) সাহেবকেও বলে দিয়েছি। রিটার্নিং কর্মকর্তাদের বক্তব্যের বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে তিনি বলেন, আমরা বলে দিয়েছি। ফোন করে আবার বলে দেবো। আমাদের নরমালি একটা সিদ্ধান্ত রয়েছে যেখানে যোগাযোগ ব্যবস্থা ভালো সেখানে সকালে ব্যলট পেপার যাবে।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here