যশোর জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচন ২৬ নভেম্বর

0
100

স্টাফ রিপোর্টার : চলতি মাসেই অর্থাৎ ২৬ নভেম্বর যশোর জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচন। নির্বাচনকে ঘিরে আইনজীবীদের মধ্যে খুশির আমেজ তৈরি হয়েছে। অন্যবারের মতো হেভিওয়েট পদে একাধিক প্রার্থীর ছড়াছড়ি নেই এবার। প্রার্থ সঙ্কটে প্যানেল। এবার শীর্ষ পদে প্রার্থী করতে বেগ পেতে হচ্ছে। ১৩ পদে প্রার্থী দিতে হিমসিম খেতে হচ্ছে প্রত্যেক প্যানেলকে। আজ মনোনয়ন পত্র জমাদানের শেষ দিন। বিগত দিনে তিনটি প্যানেলে ভোট হলেও এবার হচ্ছে দুইটি প্যানেলে। আওয়ামী লীগ সমর্থিতরা বুধবার প্যানেল ঘোষণা করেছে। আইনজীবী ফোরামের প্যানেল ঘোষণার দিন ণ এখনো ঠিক হয়নি। তারা সাধারণ সম্পাদক পদে প্রথমে প্রার্থী না দিয়ে গণতান্ত্রিক আইনজীবী সমিতির প্রার্থীকে সমর্থন দেন। শারীরিক অসুস্থতার কারণে গণতান্ত্রিক আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী থেকে আবুল হোসেন সরে দাঁড়ালে উভয় সঙ্কটে পড়েছে প্যানেলটি। আইনজীবী ফোরামের শীর্ষ পদের চার নেতা নির্বাচনে অংশ না নেয়ায় শেষমেষ হাল ধরেছেন সাধারণ সদস্য অ্যাডভোকেট নুরুল ইসলাম সিদ্দিকি চুন্নু। গণতান্ত্রিক আইনজীবী সমিতি অলিখিত পন্থায় জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামকে সমর্থন দিয়েছে বলে নীতি নির্ধারকরা নিশ্চিত করেছেন। অন্যদিকে জাতীয় পার্টি সমর্থিত জাতীয় আইনজীবী ফেডারেশন আওয়ামী আইনজীবী পরিষদ ও জামায়াতে ইসলাম সমর্থিত ইসলামী ল-ইয়ার্স কাউন্সিল জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের সাথে যুক্ত হয়ে নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে। তবে, সাধারণ ভোটাররা বলছেন নির্বাচনে প্রার্থী যেই হোক তারা চুলচেরা বিশ্লেষণ করেই তবে ভোট দেবেন। যশোর জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচন কমিশনের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট ইসমত হাসার জানিয়েছেন, সমিতির ১ নম্বর ভবন মিলনায়তনে ২৬ নভেম্বর সকাল ১০ টা থেকে বিকেল সাড়ে ৪ টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ চলবে। ১১ নভেম্বর সকাল ১০ টা থেকে বিকেল ৩ টা পর্যন্ত মনোনয়ন পত্র জমা দানের শেষ সময় নির্ধারণ করা হয়েছে। এছাড়া ১৩ নভেম্বর মনোনয়নপত্র যাচাই বাছাই শেষে ওই দিন সমিতির উভয় ভবনের নোটিশ বোর্ডে বৈধ প্রার্থীদের নামের তালিকা প্রকাশ করা হবে। প্রার্থীরা ১৭ নভেম্বর বিকেল ৩ টা পর্যন্ত মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহার করতে পারবেন। নির্বাচনে সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, সহসভাপতি পদে দু’জন, যুগ্ম সম্পাদক পদে একজন, সহকারী সম্পাদক পদে দুইজন, গ্রন্থাগার সম্পাদক পদে একজন ও পাঁচজন সাধারণ সদস্যসহ ১৩ টি পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। জেলা আইনজীবী সমিতির ৫১০ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করে আগামীর নেতা নির্বাচন করবেন। বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদ নেতারা জানায়, সভাপতি পদে শরীফ নুর মো. আলী রেজা ও বর্তমান সাধারণ সম্পাদক শাহানুর আলম শাহীন এবার প্রার্থী হচ্ছেন। সংগঠন থেকে এই দুইটি পদে তাদের মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে। তারা একট্টা হয়ে প্যানেল জয়ী হতে প্রচারনা চালাচ্ছেন। তাদের প্যানেলে ঘোষণা করা হয়েছে। অন্যদিকে, জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের নেতারা জানান, তাদের মধ্যে অভ্যন্তরীণ কোন্দলের কারণে প্রার্থী বাছাইয়ে বেগ পেতে হচ্ছে। তারা সাধারণ সম্পাদক পদে প্রার্থী খুঁজে পাচ্ছিলেন না। ফোরামের শীর্ষ পদে থাকা চারজনকে সাধারণ সম্পাদক পদে প্রার্থী হওয়ার প্রস্তাব দিলেও তারা রাজি হননি। শেষ পর্যন্ত আইনজীবী ফোরামের সাধারণ সদস্য ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব অ্যাডভোকেট নুরুল ইসলাম সিদ্দিকী চুন্নু সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচনে অংশ নেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন। জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম থেকে মোহাম্মদ ইসহক সভাপতি প্রার্থী হচ্ছেন। গণতান্ত্রিক আইনজীবী সমিতি জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের সাথে থেকে নির্বাচনে অংশ নেয়ার ঘোষণা দিয়েছে। জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের নেতারা বলেন, সমিতির সাবেক দু’ সাধারণ সম্পাদকের মধ্যে রয়েছে কোন্দল। তাদের কারণেই গতবারের নির্বাচনে ফোরামের ভরাডুবি হয় বলে মনে করেন সকলেই। এবার তার পুনরাবৃত্তি চান না তারা। নির্বাচনের আগে দলের সাথে একত্রিত হয়ে কাজ করার আহ্বান জানান সাধারণ সদস্যরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here