বেনাপোল সীমান্ত দিয়ে ভারতে তেল পাচার রোধে সতর্ক অবস্থানে সীম্ন্তারী বিজিবি সদস্যরা

0
121

বেনাপোল থেকে এনামুলহক ঃ বেনাপোল বন্দর দিয়ে ডিজেল-কেরোসিন পাচার ঠেকাতে নজরদারি বাড়িয়েছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) সদস্যরা। বৃহস্পতিবার (১১ই নভেম্বর)বিকাল ৩টার দিকে বেনাপোল বন্দরের আমদানি-রপ্তানি গেটে তেল পাচার রোধে তদারকি করতে দেখা যায় বিজিবি সদস্যদের। সম্প্রতি ভারত থেকে আমদানি পণ্যবাহি ট্রাকে তেল পাচার ও সীমান্তের কাঁটাতার বেড়া পেরিয়ে তেল পাচারের সংবাদ প্রচার হওয়ায় সীমান্তে সতর্কবস্থানে রয়েছে সীমান্তরী বাহিনী বিজিবি। ভারত থেকে আমদানি পণ্য নিয়ে ট্রাকের তেলের ট্যাংকি স্কেল দিয়ে পরিমাপ করে লিপিবদ্ধ করছে এবং ওই গাড়ি যাওয়ার সময় আবারও পরিমাপ করা হচ্ছে। এদিকে নাম প্রকাশ না’ করার শর্তে এক ব্যক্তি বলেন, ভারতে যখন তেলের দাম ১০০ টাকা তখন বাংলাদেশে তেলের দাম ছিল ৬৫ টাকা। গত ৩ নভেম্বর যখন বাংলাদেশে প্রতি ইলটার ডিজেলের দাম ৮০ টাকা করে তখন ভারতে প্রতি লিটার ৯০ রুপিতে বিক্রি হচ্ছে। এ কারনে বাংলাদেশ থেকে তেল পাচার করলে প্রতি লিটারে লাভ হয় ১৬থেকে ১৭ টাকা। এর কারনে ভারতে তেল পচার হচ্ছে।
ভারতীয় নি-২৯-৬৩৩৪ নং ট্রাক ড্রাইভার কচিসিনা জানান, আমরা ভারত থেকে যে তেল নিয়ে আইস তাতে হয়ে যায়। তবে কোন কারনে যদি কম পড়ে যায় তাহলে আমরা বিএসএফ সদস্যকে বলে ওপার থেকে তেল নিয়ে আসি। যশোর ৪৯ বিজিবি ব্যাটালিয়নের বেনাপোল আইসিপি ক্যাম্পের কমান্ডার মাহাবুবুর রহমান জানান, ভারতে জ্বালানি তেল পাচার রোধে অতিরিক্ত নজরদারি বাড়াতে হেডকোয়ার্টার থেকে তাদের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। গত ১১ দিন আগে থেকে আমদানিকৃত পণ্য নিয়ে আসা ভারতীয় ট্রাকগুলোর জ্বালানি তেল স্কেল দিয়ে পরিমাপ করা হচ্ছে ও নোট করে রাখা হচ্ছে। মালামাল খালাস করে ট্রাকগুলো ভারতে ফিরে যাওয়ার সময় আবারও স্কেল দিয়ে পরিমাপ করা হচ্ছে। আর পূর্বের নোট করে রাখা তেলের পরিমাণ মিলিয়ে ছাড়া হচ্ছে। যদি কোনো ট্রাক ভারতে ফিরে যাওয়ার সময় আগের তুলনায় জ্বালানি তেল বেশি পাওয়া যায়, তাহলে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here