৮নং ওয়ার্ডের নবনির্বাচিত কাউন্সিলর বাবলুর উন্নয়নের ভাবনা দুনিতী মুক্ত একটি আধুনিক ওয়ার্ড গড়তে চাই

0
18

আবিদ হাসান ঃ যশোর পৌরসভার অন্যতম একটি ওয়ার্ড হল পৌর এলাকার ৮নং ওয়ার্ড। বিগত দিনে এই ওয়ার্ডের বিভিন্ন রাস্তা-ঘাট, ড্রেনেজ,কালভার্ট, বৈদ্যুতিক বাতিসহ বিভিন্ন অবকাঠামো তেমন কোন উন্নয়ন ও আধুনিকতার ছোঁয়া লাগেনি। তাই বিভিন্ন সমস্যায় জর্জরিত হয়ে বসবাস করতো এই ওয়ার্ডের পৌরবাসী। বর্তমানে এই ওয়ার্ডে প্রায় বিশ হাজার মানুষের বসবাস। গত ৩১শে মার্চ যশোর পৌরসভা নির্বাচনে ৮নং ওয়ার্ডের সকল মানুষের ভালবাসা ও আশির্বাদে সিক্ত হয়ে ২হাজার ২শত ৭০ভোটে নির্বাচিত হয়ে প্রথম কাউন্সিলর নির্বাচিত হন সামাজিক, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব প্রদীপ কুমার নাথ বাবলু। তার এলাকার বিভিন্ন সার্বিক উন্নয়ন ও অবকাঠামো বিষয়ে জানতে চাইলে কাউন্সিলর প্রদীপ কুমার নাথ বাবলু দৈনিক যশোরকে জানান, ঐতিহ্যবাহী যশোর পৌরসভার অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এবং বাণিজিক ওয়ার্ড হল এই ৮নং ওয়ার্ড। আমি এই ওয়ার্ডে জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে এলাকার বিভিন্ন রাস্তা-ঘাট, ড্রেন, কালভার্ট, বৈদ্যুতিক খাম্বা ও বাতিসহ বিভিন্ন উন্নয়নমূলক শুরু করেছি। যেমন বেজপাড়া শ্রীধর পুকুর পাড়ের মোড় হতে হাফ কিলোমিটার রাস্তার বাজেট পাশকরন। বেজপাড়া গুরগুল্লাহ আজিমাবাদ মোড় হতে তালতলা বাজার ও মসজিদ, বেজপাড়া মেইন রোড পর্যন্ত রাস্তার কাজের জন্য প্রস্তাবিত করেছি। আজিমাবাদ বস্তি উন্নয়ন কর্মসূচির আওতায় রাস্তা ও ড্রেন পাঁকাকরণের কাজ চলমান রয়েছে। এছাড়াও বেজপাড়া পূজোর মাঠে ও বকুলতলা মোড় হতে আর এন রোডের রাস্তা ও ড্রেন পাঁকাকরণসহ ১২টি কালভার্ট বসানো কাজ ইতিমধ্যে চলমান রয়েছে। ৮নং ওয়ার্ডের জলাবদ্ধতা দূরকরণ ও পানি নিষ্কাশনের জন্য এস কে ভেটারের মাধ্যমে দীর্ঘ ১০ বছরের ময়লা অপসারণ করেছি। পুরো ৮ নং ওয়ার্ডকে আলোকিত করার জন্য প্রতিটি বৈদ্যুতিক খাম্বায় ৬০টি ১০০ ওয়ার্ডের এলইডি লাইট স্থাপন করেছি। এবং সবদা যশোর পৌরসভার পরিচ্ছন্ন কমী দ্বারা রাস্তা-ঘাট, বাজার, ও ডাস্টবিনের ময়লা পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন করা হয়। তিনি আরও বলেন, আজিমাবাদ বিহাড়ী পাড়া এলাকায় প্রতিদিন ৩০-৪০টি পশু জবাই করা হয়। শহরের বিভিন্ন দোকানে সেই মাংস বিক্রয় করা হয়। তাই পশুর বজ্র নিষ্কাশনের জন্য বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহণ করেছি। যাতে পুরো ৮নং ওয়ার্ড পরিচ্ছন্ন থাকে। কোতয়ালী থানার মোড় হতে রিয়াজ কাউন্সিলরের বাসা পর্যন্ত রাস্তা পাঁকাকরণ, বেজপাড়া সুধীরবাবুর বাসা হতে নলডাঙ্গার আশে পাশে ১০টি লিংক রোডের কাজ চলমান রয়েছে। এলাকার মাদক ও সন্ত্রাস মুক্ত ওয়ার্ড গড়ার বিষয়ে জানতে চাইলে কাউন্সিলর প্রদীপ কুমার নাথ বাবলু বলেন, ৮নং ওয়ার্ডে কোন মাদক ও সন্ত্রাসীর ঠাঁই নাই। তাছাড়া এই ৮নং ওয়ার্ডে চুরি, ডাকাতি, ছিনতাই, মাদক ও সন্ত্রাস মুক্ত বললেই চলে। কারণ এই ওয়ার্ডেই বিভিন্ন সুশীল সমাজের মানুষ, রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক, ডাক্তার, পুলিশ, ব্যবসায়ী, সাংবাদিক, প্রকোশলী বসবাস করেন। করোনা কালীন সময়ে তার এলাকার মানুষের স্বাস্থ্য সুরায় বিষয়ে জানতে চাইলে কাউন্সিলর বাবলু বলেন, বৈশ্বিক মহামারী করোনাকালীন সময়ে আমি কাউন্সিলর নির্বাচিত হওয়ার অনেক আগে থেকে প্রায় ১৪ হাজার মানুষের মাঝে চাল, ডাল, আলু, পিয়াজ, তেল ও নগদ অর্থ বিতরণ করেছি। করোনা ভাইরাস থেকে রার জন্য এলাকার সুবিধা বঞ্চিত মানুষের মাঝে মাস্ক, সাবান ও নিদিষ্ট হাত ধোয়ার ব্যবস্থা করেছি। মাইকিং করে এলাকায় মানুষের মাঝে করোনা ভাইরাসের সতর্কতা ও সুরার বিষয় সকলের মাঝে তুলে ধরেছি। এবং এলাকার মানুষের করোনা টিকা দেওয়ার সু-ব্যবস্থা করেছি। মুসলমানদের ধমীয় পবিত্র ঈদে ১৫০জন নারী ও পুরুষের মাঝে বস্ত্র বিতরণ এবং সেমাই, চিনি, দুধ, পোলাও চাল, মসলাসহ বিভিন্ন খাদ্য উপকরণ বিতরণ করেছি। এবং সনাতন ধর্মালম্বীদের জন্য শারাদীয় দুর্গাপুজোয় ১৫০জন নারী ও পুরুষের মাঝে বস্ত্র বিতরণ এবং নগদ অর্থ বিতরণ করেছি। এলাকার যুব সমাজ, ক্রীড়াঙ্গন ও কোমলমতী শিার্থীদের মেধা বিকাশের বিষয়ে জানতে চাইলে কাউন্সিলর বাবলু বলেন, অত্যন্ত দুঃখ জনক বিষয় হল আমার এলাকার শিার্থীর ও যুব সমাজ ছেলে মেয়েদের খেলাধুলা ও শরীরচর্চা জন্য কোন খেলার মাঠ নেই, তারা বাসার ছাদে, রাস্তা বিভিন্ন খেলাধুলা করে । অনেকেই আবার খেলাধুলা করার পরিবেশ না থাকাই ফ্রি-ফায়ার, পাবজি, ইন্টারনেটের দিকে তারা ঝুকে পড়েছে। তাই তাদের শারীরিক ও মানসিক প্রশান্তি ও সুস্থতা জন্য আমি তাদেরকে বিভিন্ন খেলাধুলার প্রতি উৎসাহিত করি। বর্তমানে এই ওয়ার্ডে বসবাস করেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য শ্রী পীযুষ কান্তি ভট্টাচার্য, প্রেসকাব যশোরের সভাপতি জাহিদ হাসান টুকুন, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বাবু মোহিত কুমার নাথ, জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি অসিম কুন্ডু ও সাধারণ সম্পাদক যোগেশ চন্দ্রের বাস ভবন, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও ঈগল পরিবহনে স্বত্বাধিকারী বাবু পবিত্র কাপুড়িয়া, সাবেক জেলা আওয়ামী লীগ নেতা এডভোকেট প্রণব ধর, সাবেক জেলা আওয়ামী নেতা জয়ন্ত ধর, জেলা বিএনপি সাবেক নেতা ও পৌর চেয়ারম্যান মরহুম ইসহাক আলী, শিাবিদ তারাপদ দাসসহ আরও অনেকেই এই ৮নং ওয়ার্ডে বসবাস করেন। বাণিজ্যিক হিসেবে সকলের সুপরিচিত মটর পাটস এর ব্যবসা এই ওয়ার্ডে রয়েছে। এবং সববৃহৎ বেজপাড়া পূজার মাঠ ও মন্দির এই ওয়ার্ডেই অবস্থিত রয়েছে। তাই সকলের ভালোবাসা, দোয়া ও আশিবাদ কামনা সকলের সহযোগিতা ুধা মুক্ত, দারিদ্র্য মুক্ত, মাদক মুক্ত, সন্ত্রাস মুক্ত, দুনিতী মুক্ত, একটি আধুনিক পৌর ওয়ার্ড গড়তে চান ৮নং ওয়ার্ডের বর্তমান কাউন্সিলর ও সকলের ভোটে নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি প্রদীপ কুমার নাথ বাবলু।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here