মাগুরার ইজিবাইক চালক আল আমিন হত্যা মামলার সন্দিগ্ধ ৪ আসামিকে আটক করেছে র‌্যাব, ব্যাটারি ও একটি চাকা উদ্ধার

0
77

স্টাফ রিপোর্টার : যশোরের বাঘারপাড়া উপজেলা ও কোতয়ালি থানার মধ্যবর্তী বুধোপুর (বাঘারপাড়ার মধ্যে) গ্রামের লিচু বাগান থেকে উদ্ধার নিহত ইজিবাইক চালক আল আমিন হত্যার সন্দিদ্ধ ৪ আসামিকে আটক করেছে র‌্যাব-৬ যশোর ক্যাম্পের সদস্যরা।
গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে সংবাদ পেয়ে র‌্যাব মাগুরা ও যশোরের কোতয়ালি থানা এলাকার মধ্যে অভিযান চালিয়ে গত শুক্রবার রাতে তাদের আটক করে। আটককৃতরা হলো, সদর উপজেলার সাতমাইল মথুরাপুর গ্রামের হযরত আলীর ছেলে আল-আমিন (২১), মাগুরার শালিখা উপজেলার রামপুর বুনাগাতী গ্রামের জাহঙ্গীর খানের ছেলে জুয়েল খান (২৩), সেলিম হোসেনের ছেলে হারুন অর রশিদ (২৭) এবং যশোর সদর উপজেলার রায়পাড়া গ্রামের সুলতান মল্লিকের ছেলে রাসেল (৩২)। র‌্যাব জানিয়েছে, মাগুরার হরিশপুর গ্রামের মোস্তাফিজুর রহমানের ছেলে আল-আমিন গত ৯ ডিসেম্বর সকাল ৮টার দিকে মাগুরার সিমাখালী থেকে তিনজন যাত্রী নিয়ে যশোরের বাঘারপাড়ার উদ্দ্যেশ্যে রওনা হন। এরপর থেকে আল আমিন নিখোঁজ হন। তাকে বিভিন্নস্থানে খোঁজ করে পরিবারের সদস্যরা। না পেয়ে শালিখা থানায় একটি অভিযোগ দেন। পরবর্তীকে ১১ ডিসেম্বর বাঘারপাড়া উপজেলার বুধোপুর গ্রামের নওশের আলীর লিচু বাগানের মধ্যে থেকে তার মরদেহ উদ্ধার হয়। এই ঘটনায় বাঘারপাড়া থানায় একটি মামলা হয়। এরপর থেকে এই হত্যার রহস্য ও আসামি আটকের জন্য র‌্যাব গোয়েন্দা তৎপরতা অব্যহত রাখে। গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে গত শুক্রবার রাতে প্রথমে আসামি আল আমিনকে আটক করে। পরে তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে জুয়েল খান ও হারুন অর রশিদকে আটক করা হয়। এই তিনজনের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে রাসেলকে তার বাড়ি থেকে আটক করা হয়। এরপর রাসেলের বাড়ি থেকে ইজিবাইকের ৫টি ব্যাটারি এবং একটি অতিরিক্ত একটি চাকা উদ্ধার করা হয়েছে। আটক আসামিরা ইজিবাইক চালক আল আমিনকে হত্যা করে ইজিবাইক নিয়ে যাওয়ার সত্যতা স্বীকার করেছে। আটক চারজনকে বাঘারপাড়া থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে বলে র‌্যাব জানিয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here