যবিপ্রবি শিক্ষক সমিতির সংবর্ধনায় বক্তারা – মানুষের পাশে দাঁড়ানোর স্বীকৃতি পেয়েছেন যবিপ্রবি উপাচার্য

0
44

স্টাফ রিপোর্টার :: করোনা অতিমারীর সময় কোভিড-১৯ পরীক্ষা, করোনার নতুন ধরণ শনাক্তসহ করোনার উচ্চতর গবেষণার মাধ্যমে মানুষের পাশে দাঁড়ানোর স্বীকৃতি স্বরূপ গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (যবিপ্রবি) উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোঃ আনোয়ার হোসেনকে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিতে একুশে পদক-২০২২ দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন বক্তারা।আজ রোববার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব একাডেমিক ভবনের গ্যালারিতে শিক্ষক সমিতি কর্তৃক আয়োজিত যবিপ্রবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোঃ আনোয়ার হোসেনের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বক্তারা এসব কথা বলেন।সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে যবিপ্রবির কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক মো. আব্দুল মজিদ বলেন, যবিপ্রবি উপাচার্য শুধু শিক্ষা ও গবেষণায় দক্ষ তা নয়, তিনি আর্থিক বিষয়েও স্বচ্ছতা ও দ্রুততার সাথে সিদ্ধান্ত নিতে পারেন। এ কারণেই তাঁর গতিশীল নেতৃত্বে যবিপ্রবিতে শিক্ষা ও গবেষণার উন্নয়নের পাশাপাশি অবকাঠামোগত উন্নয়নও দ্রুত গতিতে সম্পন্ন হচ্ছে।সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে যবিপ্রবির জ্যেষ্ঠ অধ্যাপক ড. মো. আনিছুর রহমান বলেন, করোনা অতিমারীর সময় কোভিড-১৯ পরীক্ষা, করোনার নতুন ধরণ শনাক্তসহ করোনার উচ্চতর গবেষণার মাধ্যমে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে বাংলাদেশের প্রথম পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে তিনি মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন। মানুষের পাশে দাঁড়ানোর এই স্বীকৃতি স্বরূপ হয়তো গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার যবিপ্রবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোঃ আনোয়ার হোসেনকে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিতে একুশে পদক-২০২২ প্রদান করেছেন। এটি শুধু তাঁর নিজের অর্জন নয়, যবিপ্রবি পরিবারের প্রতিটি সদস্যদের অর্জন। এ কারণে আমরা আনন্দিত ও গর্বিত।বর্ণাঢ্য সংবর্ধনা অনুষ্ঠান আয়োজন করায় শিক্ষক সমিতির সদস্যদের ধন্যবাদ জানিয়ে অধ্যাপক ড. মোঃ আনোয়ার হোসেন বলেন, ‘সম্মান অর্জন করা সহজ। কিন্তু ধরে রাখা কঠিন। সেই কঠিন দায়িত্ব এখন আপনাদের স্কন্ধে। আশা করি, শিক্ষা ও গবেষণায় আমরা যেভাবে অগ্রগতি অর্জন করেছি, অন্যান্য সকল ক্ষেত্রে এ ধারা অব্যাহত রাখতে হবে। যবিপ্রবিকে বিশ্বের বুকে ছড়িয়ে দিতে হবে।’আলোচকদের বক্তব্য শুরুর পূর্বে বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল অধ্যাপকগণ যবিপ্রবি উপাচার্যকে উত্তরীয় পরিয়ে দেন। পরবর্তীতে শিক্ষক সমিতি-২০২২ এর কার্যনির্বাহী কমিটির সকল সদস্য একুশে পদক-২০২২ প্রাপ্তিতে যবিপ্রবি উপাচার্যকে সম্মাননা স্মারক তুলে দেন। এ সময় মুহুর্মুহু করতালির মাধ্যমে উপস্থিত সকলেই তাঁকে শুভেচ্ছা জানান।  শিক্ষক সমিতির সভাপতি ড. সেলিনা আক্তারের সভাপতিত্বে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন ডিনস কমিটির আহ্বায়ক ড. মো. মেহেদী হাসান, জীববিজ্ঞান ও প্রযুক্তি অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মো. ইকবাল কবীর জাহিদ, ফলিত বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. সাইবুর রহমান মোল্যা, যবিপ্রবির জ্যেষ্ঠ অধ্যাপক ড. সৈয়দ মিজানুর রহমান, রেজিস্ট্রার প্রকৌশলী মো. আহসান হাবীব প্রমুখ। অনুষ্ঠানে যবিপ্রবি উপাচার্যের জীবনী পাঠ করেন শিক্ষক সমিতির ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক মো. শাহীন সরকার। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ড. মো. আশরাফুজ্জামান জাহিদ। সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here