জুম বাংলাদেশ যশোর শাখার মাসব্যাপি ইফতারী বিতরণ কর্মসূচীর উদ্বোধন

0
43

যশোর শহরে অবস্থানরত অসহায়, দরিদ্র ও ছিন্নমূল রোজাদার মানুষের মাঝে মাসব্যাপী কর্মসূচি গ্রহণ করেছে জুম বাংলাদেশ যশোর শাখা। প্রথম রোজার দিন থেকে যশোর কোতয়ালী মডেল থানার সামনে থেকে প্রতিদিন শতাধিক মানুষকে ইফতারী বিতরণ করবে সংগঠনটি। কর্মসূচীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সংগঠনের সভাপতি ও আর্স বাংলাদেশ এনজিও এর নির্বাহী পরিচালক মোঃ শামছুল আলমের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জুম বাংলাদেশ যশোর শাখার প্রধান উপদেষ্টা ও যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের পিএমই বিভাগের সাবেক চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ তোফায়েল আহমেদ। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন জুম বাংলাদেশ যশোর শাখার সাধারণ সম্পাদক সরদার ফরিদ আহমেদ, যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মকর্তা মোঃ নাসিমুল জামিল, মোঃ মনিরুল আসলাম রনি, আর্স বাংলাদেশ এনজিও এর কর্মকর্তা ও জুম বাংলাদেশ যশোর শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ আব্দুল মতিন, আল জোবায়ের রনি, কোষাধ্য মোঃ হাসানুর রহমান টোকন, মোঃ মিজানুর রহমান, বি. এম. সামারুক সোহাগ, মোঃ মাহমুদুল হাসান, এ. এইচ আহাদ, খন্দকার রুবাইয়া, মোঃ হারুনুর রশিদ, মোঃ মাহাবুবুর রহমান প্রমুখ। প্রধান অতিথির বক্তব্যে অধ্যাপক ড. মোঃ তোফায়েল আহমেদ বলেন, সমাজে যারা বিত্তবান ও সমর্থবান তাদের প্রত্যেকের উচিত সমাজে পিছিয়ে পড়া মানুষদের পাশে দাঁড়ানো। সমাজে ভালোভাবে বেঁচে থাকার জন্য সমাজের সকল লোককেই ভালো থাকতে হয়। তাই সমাজে যারা সামর্থবান তাদের কাছে উদাত্ত আহবান জানাই আপনারা এই অসহায় ও দারিদ্র্য মানুষের পাশে দাড়ান। সভাপতি মোঃ শামছুল আলম বলেন, জুম বাংলাদেশ যশোর শাখা সমাজে অবহেলিত ও অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্যই তৈরি হয়েছে। আমরা যশোরের বিভিন্ন প্রান্তে পিছিয়ে পড়া অসহায় বাচ্চাদের নিয়ে কাজ করি। সাথে সাথে দেশের বিভিন্ন ক্রান্তিলগ্নে সরকারের সাথে সাথে আমরাও মানুষের সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিই। জুম বাংলাদেশ যশোর শাখা যশোরের আপামর অসহায় ও দরিদ্র মানুষের পাশে ছিলো ও থাকবে। মাসব্যাপী এই ইফতারী বিতরণ কর্মসূচী প্রতিদিন ইফতারীর ৪০ মিনিট আগে থেকে শুরু হবে। যশোর শহরে অবস্থানরত অসহায় ও দুস্থ রোজাদার মানুষকে এই ইফতারী কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করার জন্য সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদক সরদার ফরিদ আহমেদ আহবান জানিয়েছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here