মণিরামপুরে নববধূর ঝুলন্ত মরাদেহ উদ্ধার

0
35

হেলাল উদ্দিন, রাজগঞ্জ প্রতিনিধি : মণিরামপুরে আম্বিয়া খাতুন (২০) নামের এক নববধূর ঝুলন্ত মরাদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। ১৩ দিন আগে (২৯ জুলাই) বাড়ির পাশের গ্রামে তার বিয়ে হয়েছিল।
বুধবার (১০ আগস্ট-২০২২) দুপুরে বাবার বাড়িতে ফ্যানের সাথে ফাঁস দিয়ে তিনি আত্মহত্যা করেছেন।
আম্বিয়া খাতুন মণিরামপুরের কাশিপুর গ্রামের সিদ্দিকুর রহমানের মেয়ে। তিনি একই উপজেলার হালসা গ্রামের জাহাঙ্গীর আলমের স্ত্রী।
নববধূর আত্মহত্যার প্রকৃত কারণ জানা যায়নি। তবে স্বজনদের দাবি মানসিক ভারসাম্যহীনতা থেকে আম্বিয়া আত্মহত্যা করেছেন।
খেদাপাড়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক আহবায়ক হাদিউজ্জামান ফয়সাল বলেন- গত ২৯ জুলাই আমার বন্ধু জাহাঙ্গীর আলমের সাথে বিয়ে হয় আম্বিয়ার। গত সোমবার (৮ আগস্ট-২০২২) স্বামীর বাড়ি থেকে বাবার বাড়িতে আসেন আম্বিয়া। বুধবার (১০ আগস্ট-২০২২) দুপুরে বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগে ঘরে সিলিং ফ্যানের সাথে রশি জড়িয়ে গলায় ফাঁস দেন আম্বিয়া।
হাদিউজ্জামান বলেন- আম্বিয়ার মা বাড়ি এসে মেয়েকে ঝুলতে দেখে চিৎকার দেন। পরে তাকে উদ্ধার করে মণিরামপুর উপজেলা হাসপাতালে নিলে চিকিৎসক গৃহবধূকে মৃত ঘোষণা করেন।
মণিরামপুর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক তরিকুল ইসলাম বলেন- বিকেলে হাসপাতালে আনার পর আমরা গৃহবধূকে মৃত অবস্থায় পেয়েছি।
মণিরামপুর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) নাজমুল হোসেন বলেন- আম্বিয়া ৩-৪ বছর ধরে মানসিক রোগে ভুগছিলেন। তার চিকিৎসা চলছিলো। এ অবস্থায় দু’সপ্তাহ আগে পরিবারের লোকজন তাকে বিয়ে দেন। তিনি বাবার বাড়িতে গলায় ফাঁস দিয়েছেন। স্বজনদের অনুরোধে মৃতদেহ দাফনের অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here